অবসাদ কমে জুঁই ফুলে! সম্পদ বাড়ায় অ্যাকোয়ারিয়াম?

1851

টেনশন, মনখারাপ, অবসাদ যেন আমাদের রোজের জীবনে একুশ শতকের উপহার। যুগ চলছে জেট গতিতে। তার সঙ্গে পাল্লা দিতে গিয়ে হা-ক্লান্ত আমি-আপনি। এদিকে সম্পদ না বাড়ালে যে লাইফস্টাইল মেনটেন সম্ভব নয়! অতঃ কিম? খুব কিছু জিনিস আপন করে নিলেই আপনি হতে পারেন ‘হ্যাপি গো লাইক।’ কীভাবে? রইল তারই টিপস—

জুঁই ফুলে জীবন তাজা

ঘরে অক্সিজেনের পরিমাণ বাড়লে শরীর ভালো থাকবে সহজেই। শরীর ভালো থাকলেই মন থাকবে ফুরফুরে। এর জন্য ঘরের জানালার পাশে বা প্রবেশ পথের দরজার উপর দিয়ে ছড়িয়ে দিতে পারেন জুঁই ফুলের গাছ। গাছ ঘরে অক্সিজেনের পরিমাণ বাড়াতে খুবই সাহায্য করে।

জুঁই ফুল খুব ভালো রুম ফ্রেশনার। গরমকালে সকাল-সন্ধেয় একবাটি জলে একমুঠো জুঁই ফুল দিয়ে বসার ঘরের টেবিল বা কোনও তাকে রেখে দিন। ঘর জুড়ে হালকা মিষ্টি গন্ধ ভাসবে। এতে হ্যাপি হরমোনের ক্ষরণ বেড়ে মন ভালো হয়ে যাবে এমনিতেই।

স্নানের আগে বালতি জলে বেশ কিছুটা জুঁই ফুল ফেলে দিন। ঘণ্টাখানেক রেখে তাতে স্নান সারুন। হালকা গন্ধ শরীর ঘিরে ডিও-র কাজ করবে। হরমোনের ব্যালান্স ঠিক থাকবে। পিএমএসের সমস্যা কমবে।

জুঁই ফুলের গাছ থেকে বানাতে পারেন জেসমিন টি। এই বিশেষ চা নার্ভাস সিস্টেমকে শান্ত রাখে। অবসাদ, উৎকণ্ঠা কমিয়ে দেয়।

সম্পদ বাড়ে অ্যাকোয়ারিয়ামে—

বাস্তু মতে বাড়ির মূল প্রবেশ দরজা সবসময় উত্তর-পূব মুখী হওয়া বাঞ্ছনীয়। দরজার মুখোমুখি যে দেওয়াল তাকে উজ্জ্বল রং, সুন্দর ছবি দিয়ে সাজিয়ে দিন। এতে বাড়িতে পজিটিভ এনার্জির পরিমাণ বাড়বে।

প্রবেশ দ্বারের সামনেই জুতো খুলে রাখবেন না বা জুতোর তাক যেন না থাকে। এতে পজিটিভ শক্তি প্রবেশে বাধা তৈরি হয়।

একই সঙ্গে বাড়ির আশপাশের পরিব়শ পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে। ঘরের ভেতর বা বাইরে ঝুল বা ময়লা জমলে ঝেড়েমুছে সাফ করে নিন। ঘরের কোণে জমে থাকা ঝুল পরিবারে অশান্তি তৈরি করে।

প্রবেশ দ্বারের সামনে অ্যাকোয়ারিয়াম রাখতে পারেন। বাস্তুবিদরা বলছেন, এতে পজিটিভ শক্তি বাড়ে ঘরের। মাছের চলন সম্পদ বাড়াতেও সাহায্য করে।

শোওয়ার ঘরে দেব-দেবীর মূর্তি বা ছবি রাখা চলবে না। বরং শোবার ঘর থেকে একটু দূরে বানান ঠাকুর ঘর। ঘরের মুখ পশ্চিমুখো হতে হবে। দেবদেবীর মুখ থাকবে পূব দিকে। একই দেবতার একাধিক মূর্তি না রাখাই ভালো। রাখলেও মুখোমুখি রাখবেন না।

পারলে রোজ এক গ্লাস জল খাটের নীচে রেখে দিন। রোজ অবশ্যই সেটা বদলে দেবেন। একে বলে ওয়াটার থেরাপি। এর প্রভাবে ঘরের অশুভ শক্তি নষ্ট হয়।

Advertisements

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.