জানেন কি কিশোর কুমারের গানের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল ভারত সরকার?

জানেন কি কিশোর কুমারের গানের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল ভারত সরকার?

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

রোম্যান্টিক হোক বা বিরহের কিংবদন্তী গায়ক কিশোর কুমার সব রকম মুডের জন্য গান গেয়েছেন | বেশ কয়েক দশক উনি সঙ্গীতপ্রেমীদের মনে রাজত্ব করেছেন |এমনকি আজও ওঁর গান সমান ভাবেই জনপ্রিয় | কিন্তু জানেন কি সাত-এর দশকে একবার ভারত সরকার কিশোর কুমারের গানের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল | 

সেই সময় ভারতের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন ইন্দিরা গান্ধী | ১৯৭৬ সালে দেশে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয় | সেই সময় ভারত সরকারের একজন প্রজ্ঞাপক বিদ্যা চরণ শুক্লা কিশোর কুমারের কাছে একটা প্রস্তাব নিয়ে যান | ঠিক হয়েছিল বলিউডের সব থেকে জনপ্রিয় দশজন সেলিব্রিটিদের সাহায্য নিয়ে সরকারি নীতির প্রচার করা হবে অল ইন্ডিয়া রেডিও ও দূরদর্শনে | কিন্তু কিশোর কুমার এই ব্যাপারে সাহায্য করতে অস্বীকার করেন |

কিশোর কুমারকে আরও একবার বোঝাতে তথ্য ও সম্প্রাচার এর যুগ্ন সচিব সিবি জৈন গায়ককে ফোন করেন | উনি সবিস্তারে কিশোরকে জানান সরকার ওঁর কাছ থেকে কী চাইছে | সিবি জৈন কিশোর কুমারের সঙ্গে দেখাও করতে চান | কিন্তু তাঁকেও ফিরিয়ে দেন কিশোর কুমার | উনি জানিয়ে দেন ওঁর শরীর খারাপ তাই ডাক্তার ওঁকে গান গাইতে বারণ করেছেন এবং ঘরে রেস্ট নিতে নির্দেশ দিয়েছেন |

এতে বিক্ষুব্ধ সিবি জৈন গায়কের নামে তথ্য ও সম্প্রচার সচিব এস এম এইচ বার্নের কাছে অভিযোগ জানান | সবাই মিলে সিদ্ধান্ত নিয়ে একটা অর্ডার পাস করেন | তাঁরা অল ইন্ডিয়া রেডিও ও দূরদর্শন থেকে কিশোর কুমারের গান ব্যান করে দেন | অবিলম্বে কিশোর কুমার একটা চিঠি লিখে সরকারি কর্মকর্তাদের জানিয়ে দেন উনি সব রকমভাবে সরকারকে সাহায্য করতে প্রস্তুত আছেন | ফলে ওঁর গানের ওপর থেকেও সব নিষেধাজ্ঞা উঠিয়ে নেওয়া হয় |

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

Leave a Reply

pandit ravishankar

বিশ্বজন মোহিছে

রবিশঙ্কর আজীবন ভারতীয় মার্গসঙ্গীতের প্রতি থেকেছেন শ্রদ্ধাশীল। আর বারে বারে পাশ্চাত্যের উপযোগী করে তাকে পরিবেশন করেছেন। আবার জাপানি সঙ্গীতের সঙ্গে তাকে মিলিয়েও, দুই দেশের বাদ্যযন্ত্রের সম্মিলিত ব্যবহার করে নিরীক্ষা করেছেন। সারাক্ষণ, সব শুচিবায়ু ভেঙে, তিনি মেলানোর, মেশানোর, চেষ্টার, কৌতূহলের রাজ্যের বাসিন্দা হতে চেয়েছেন। এই প্রাণশক্তি আর প্রতিভার মিশ্রণেই, তিনি বিদেশের কাছে ভারতীয় মার্গসঙ্গীতের মুখ। আর ভারতের কাছে, পাশ্চাত্যের জৌলুসযুক্ত তারকা।