জানেন কি কিশোর কুমারের গানের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল ভারত সরকার?

516

রোম্যান্টিক হোক বা বিরহের কিংবদন্তী গায়ক কিশোর কুমার সব রকম মুডের জন্য গান গেয়েছেন | বেশ কয়েক দশক উনি সঙ্গীতপ্রেমীদের মনে রাজত্ব করেছেন |এমনকি আজও ওঁর গান সমান ভাবেই জনপ্রিয় | কিন্তু জানেন কি সাত-এর দশকে একবার ভারত সরকার কিশোর কুমারের গানের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল | 

সেই সময় ভারতের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন ইন্দিরা গান্ধী | ১৯৭৬ সালে দেশে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয় | সেই সময় ভারত সরকারের একজন প্রজ্ঞাপক বিদ্যা চরণ শুক্লা কিশোর কুমারের কাছে একটা প্রস্তাব নিয়ে যান | ঠিক হয়েছিল বলিউডের সব থেকে জনপ্রিয় দশজন সেলিব্রিটিদের সাহায্য নিয়ে সরকারি নীতির প্রচার করা হবে অল ইন্ডিয়া রেডিও ও দূরদর্শনে | কিন্তু কিশোর কুমার এই ব্যাপারে সাহায্য করতে অস্বীকার করেন |

কিশোর কুমারকে আরও একবার বোঝাতে তথ্য ও সম্প্রাচার এর যুগ্ন সচিব সিবি জৈন গায়ককে ফোন করেন | উনি সবিস্তারে কিশোরকে জানান সরকার ওঁর কাছ থেকে কী চাইছে | সিবি জৈন কিশোর কুমারের সঙ্গে দেখাও করতে চান | কিন্তু তাঁকেও ফিরিয়ে দেন কিশোর কুমার | উনি জানিয়ে দেন ওঁর শরীর খারাপ তাই ডাক্তার ওঁকে গান গাইতে বারণ করেছেন এবং ঘরে রেস্ট নিতে নির্দেশ দিয়েছেন |

এতে বিক্ষুব্ধ সিবি জৈন গায়কের নামে তথ্য ও সম্প্রচার সচিব এস এম এইচ বার্নের কাছে অভিযোগ জানান | সবাই মিলে সিদ্ধান্ত নিয়ে একটা অর্ডার পাস করেন | তাঁরা অল ইন্ডিয়া রেডিও ও দূরদর্শন থেকে কিশোর কুমারের গান ব্যান করে দেন | অবিলম্বে কিশোর কুমার একটা চিঠি লিখে সরকারি কর্মকর্তাদের জানিয়ে দেন উনি সব রকমভাবে সরকারকে সাহায্য করতে প্রস্তুত আছেন | ফলে ওঁর গানের ওপর থেকেও সব নিষেধাজ্ঞা উঠিয়ে নেওয়া হয় |

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.