যেসব মহিলা সদ্য মা হয়েছেন তাঁদের কথা ভেবে বিশেষ পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে কোচি মেট্রো রেল লিমিটেড । যার ফলে চারটি মেট্রো স্টেশনে চালু হল শিশুদের স্তন্যপান করানোর জন্য আলাদা কক্ষ । দেশের মধ্যে কোচি মেট্রো কর্তৃপক্ষই প্রথম এমন পদক্ষেপ নিল ।

চার ফুট বাই চার ফুটের ওই বিশেষ কক্ষের নকশা তৈরি করেছে ‘আই লাভ নাইন মান্থস’ নামের একটি স্টার্ট আপ সংস্থা। কক্ষের ভেতর আধুনিক সব ব্যবস্থাই থাকছে। আলো-বাতাসে ভরপুর এই কক্ষে মায়েদের বসার ব্যবস্থা থেকে শুরু করে শিশুদের পোশাক বদলানোর ব্যবস্থা, থাকছে সবই। হাত ধোওয়ার জন্য থাকছে হ্যান্ড স্যানিটাইজার। প্রাথমিকভাবে এই খরচ বহন করছে  সিআইএমএআর নামে কোচির এক বেসরকারি হাসপাতাল। ‘আই লাভ নাইন মান্থস’ সংস্থার সহ-প্রতিষ্ঠাতা গঙ্গারাজ জানিয়েছেন, জনসমক্ষে সন্তানকে স্তন্যপান করানো আমাদের সমাজে একটা চ্যালেঞ্জিং কাজ। যাঁরা সদ্য মা হয়েছেন, তাঁদের ক্ষেত্রে রাস্তায় বেরোলে প্রায়শই শিশুকে স্তন্যপান করানো নিয়ে সমস্যায় পড়তে হয়। স্তন্যপানের মতো একটি প্রাকৃতিক কাজকে আর পাঁচটা বিষয়ের মতো স্বাভাবিক করে তুলতে তাঁদের এই প্রয়াস বলে জানিয়েছেন তাঁরা। নিজের সন্তানকে স্তন্যপান করাতে গিয়ে কোনও মা’কেই যাতে কোনও অপ্রীতিকর পরিস্থিতির মধ্যে না পড়তে হয়, এবং মা যাতে একটু ব্যক্তিগত পরিসরে সন্তানকে স্তন্যপান করাতে পারেন, সেই পরিষেবাটুকু পৌঁছে দেওয়াই তাঁদের লক্ষ্য।

আলুভা স্টেশনে প্রথম স্তন্যপান করানোর কক্ষটি উদ্বোধন করলেন কোচি মেট্রো রেল লিমিটেড-এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর এপিএম মহম্মদ হানিশ। আলুভা ছাড়াও এমজি রোড, এদাপাল্লি এবং লিসি, এই তিনটি স্টেশনে আগামী মাস থেকেই চালু হবে স্তন্যপান করানোর এই আলাদা কক্ষগুলি। এই প্রসঙ্গে মহম্মদ হানিশ জানিয়েছেন, এটি নিঃসন্দেহে একটি অনবদ্য প্রয়াস। সমাজে মহিলা-শিশু এবং আপামর সাধারণ মানুষের জীবন-যাপন স্বাস্থ্যকর এবং সুরক্ষিত করে তোলাই তাঁদের একমাত্র লক্ষ্য।

আরও পড়ুন:  ' সোশ্যাল মিডিয়ায় নয়‚ যুদ্ধ করুন সীমান্তে গিয়ে '

NO COMMENTS