বরনানা গুন্নায়া কদিন আগেও সিমেন্ট কারখানায় কাজ করতেন | দৈনিক ১০০ টাকা মজুরিতে | যখন দেখলেন তাঁর ছেলে সেনার পোশাকে প্যারেড করছেন‚ নিজের চোখের জল ধরে রাখতে পারেননি | 

Banglalive

কিছুটা আশ্বস্ত হয়েছেন যখন শুনেছেন ছেলেকে ময়দানে গিয়ে যুদ্ধ করতে হবে না | কারণ তাঁর ছেলে বরনানা ইয়াদাগিরি সেনাবাহিনীতে যোগ দিয়েছেন অফিসার পদমর্যাদায় | 

অবশ্য এই প্রথমবার নয় | এর আগেও একাধিকবার ছেলের কাজে বিস্মিত হয়েছেন বরনানা | তাঁর নুন আনতে পান্তা ফুরোনোর সংসার থেকেই লড়াই করেছেন ইয়াদাগিরি | হায়দ্রাবাদের ইন্টারন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ইনফরমেশন টেকনোলজি থেকে সফ্টওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হয়েছেন তিনি | 

তারপর তাঁর সামনে দুটো সুযোগ | একদিকে মার্কিন সংস্থা থেকে লোভনীয় পে প্যাকেজের চাকরির হাতছানি | অন্যদিকে আইআইএম ইন্দোরে পড়ার সুযোগ | ক্যাট-এ ৯৩.% স্কোর করেছিলেন তিনি |

চাকরি বা উচ্চতর পড়াশোনা‚ কোনওটাই করলেন না ইয়াদাগিরি | শুনলেন নিজের মনের ডাক | সব ফেলে যোগ দিলেন ভারতীয় সেনাবাহিনীতে | ইন্ডিয়ান মিলিটারি অ্যাকাডেমির টেকনিক্যাল গ্র্যাজুয়েট কোর্সে অর্ডার অফ মেরিট-এ প্রথম হয়েছেন তিনি | পেয়েছেন রৌপ্য পদক | সেইসঙ্গে সেনাবাহিনীর ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে যোগদানের ছাড়পত্র |

সদ্য সেনা আধিকারিক হওয়া ইয়াদাগিরির স্পষ্ট মনে আছে সেসব দিন | যখন তাঁর বাবা মজুরি পেতেন দৈনিক মাত্র ৬০ টাকা | সংসার চালাতে পোলিও আক্রান্ত মা অফিসে অফিসে টেবল মুছতেন | সরকারি জলপানিতে পড়াশোনা করেছেন ইয়াদাগিরি |

অবসরের শখ বলতে বই পড়া আর নতুন লোকের সঙ্গে আলাপ করা | টাকার লোভে কর্পোরেট জগতে বিকিয়ে যেতে চাননি | দেশসেবা করবেন বলে যোগ দিয়েছেন সেনাবাহিনীতে | বলছেন‚ কঠোর পরিশ্রম তাঁর রক্তে | এখন চান দেশের অবিমিশ্র সেবায় আত্ম নিবেদন করতে | 

আরও পড়ুন:  মৃত্যুর গুজব উড়িয়ে মা-এর সঙ্গে ছবি পোস্ট করলেন মমতাজের মেয়ে

NO COMMENTS