ভাগ্যিস ! ডাক্তারের পসার জমেনি‚ নইলে কোথায় পেতাম শার্লক হোমসকে !

4356

তিনি না থাকলে জন্ম হতো না ফেলুদার | বলেছিলেন সত্যজিৎ রায় |
তিনি স্যর আর্থার কোনান ডয়েল | তাঁর কলমে শার্লক হোমস-এর অভিযানে এতটাই মুগ্ধ ছিলেন সত্যজিৎ‚ নিজের গোয়েন্দাকে গড়েছিলেন হোমসের আদলেই |
আর্থার কোনান ডয়েলের জন্ম ১৮৫৯ সালের ২২ মে |  জন্মবার্ষিকীতে আসুন হোমস-স্রষ্টার জীবনে উঁকি দিয়ে একটু গোয়েন্দাগিরি করে আসি |

# তাঁর জন্মগত নাম ছিল Arthur Ignatius Conan Doyle | কিন্তু হাই স্কুল উত্তীর্ণ হওয়ার পরে তিনি নিজের নাম লিখতে শুরু করেন Arthur Conan Doyle |

# শার্লক হোমস-এর গল্প লিখে মোটেও নাইট উপাধি পাননি | পেয়েছিলেন Boer War-এর উপরে নন ফিকশন প্যাম ফ্লেট লিখে | ১৯০২ সালে রাজা সপ্তম এডওয়ার্ড দিয়েছিলেন তাঁকে নাইট উপাধি | নামের আগে বসেছিল স্যর উপাধি |

# ব্রিটেনের প্রথম দিকের মোটোরিস্টের মধ্যে একজন | বিশ শতকের গোড়ায় গাড়ি কিনেছিলেন | তখন ড্রাইভিং-এর এক বিন্দুও জানতেন না |

# ড্রাকুলা-স্রষ্টা ব্রাম স্টোকার ছিলেন ডয়েলের বিশেষ বন্ধু | ট্রেজার আইল্যান্ড রচয়িতা আর এল স্টিভেনসন ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ে সহপাঠী |

# ক্রিকেট‚ ফুটবল খুব ভাল খেলতেন | আর পছন্দ করতেন স্কি করতে | স্কি-কে জনপ্রিয় করতে অনেক উদ্যোগ নিয়েছিলেন |

# Unionist Party-র হয়ে দু দুবার সংসদীয় ভোটে দাঁড়িয়েছিলেন | ভোট মন্দ পাননি | কিন্তু দুবারই হেরে গিয়েছিলেন |

# Boer War-এ দেশের হয়ে লড়তে চেয়েছিলেন | কিন্তু এত মোটা তাঁকে যুদ্ধের ময়দানে নামানো হয়নি | তাই তিনি চিকিৎসক হয়ে গিয়েছিলেন আফ্রিকায়‚ যুদ্ধক্ষেত্রে |

# ডাক্তারি পাশ করে লন্ডনে খুলেছিলেন চেম্বার | কিন্তু একটা রোগীও চৌকাঠ পেরোননি তাঁর কাছে চোখ পরীক্ষা করাতে | দীর্ঘ সময় কাটাতে চেম্বারে বসে রহস্য গল্প লিখতেন ডাক্তার বাবু | ভাগ্যিস ! তাঁর পসার জমেনি |

# দুধের স্বাদ ঘোলে মেটাতে হোমস-এর সহকারী ওয়াটসনকে করেছিলেন পেশায় চিকিৎসক |

# নিজে ডাক্তার এবং রহস্য গল্প লিখিয়ে হলে কী হবে কোনান ডয়েল মনেপ্রাণে বিশ্বাস করতেন রূপকথার অলীক জগতে |

# জাদুকর হুডিনি ছিলেন তাঁর অভিন্নহৃদয় বন্ধু | কিন্তু অতীন্দ্রিয় বিশ্বাস-অবিশ্বাসের প্রশ্নে ফাটল ধরেছিল বন্ধুত্বে |

# শুধু রহস্য গল্প লেখাই নয় | বাস্তব জীবনে তিনি বেশ কিছু রহস্য সমাধানও করেছিলেন |

# ১৯৩০ সালের ৭ জুলাই বাড়ির বাগানে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছিল হোমস স্রষ্টার | এক হাতে ধরা ছিল ফুল | পাশে দাঁড়ানো স্ত্রীকে শুধু অস্ফুট স্বরে বলতে পেরেছিলেন ‘ You are wonderful ‘ |  

# তাঁর প্রয়াণের পরে লন্ডনের রয়্যাল অ্যালবার্ট হলে ছিল স্মরণসভা | সামনের সারিতে ছিলেন তাঁর পরিবারের সদস্যরা | একটি আসন ফাঁকা ছিল স্বয়ং স্যর আর্থার কোনান ডয়েলের জন্য | সভায় উপস্থিত অনেকেই নাকি অনুভব করেছিলেন তাঁর উপস্থিতি |

Advertisements

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.