অসাবধানতায় শিশু পড়ে গেল তিন পান্ডার সামনে‚ তারপর এক রোমহর্ষক ঘটনা

অসাবধানতায় শিশু পড়ে গেল তিন পান্ডার সামনে‚ তারপর এক রোমহর্ষক ঘটনা

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

এবার আর বাঘ বা সিংহের খাঁচায় নয়, জায়েন্ট পান্ডার খাঁচায় অসতর্কতাবশত পড়ে গিয়েছে একটি শিশু। ঘটনাটি ঘটেছে চিনের সিচুয়ান প্রদেশের চেংডু রিসার্চ বেস-এ। এখানে জায়েন্ট পান্ডাদের  প্রজননের জন্য তৈরি হওয়া চেনংডু রিসার্চ বেসে এই ভয়ানক ঘটনাটি ঘটে। ‘চায়না ডেইলি’-তে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে জানা গিয়েছে, এই জায়েন্ট পান্ডা দেখতে বেশ ভিড় জমেছিল চেনংডু রিসার্চ বেসে। সেদিন এই খাঁচায় ছিল তিনটি জায়েন্ট পান্ডা। অসাবধানতায় ৮ বছরের একটি ছোট্ট একটি মেয়ে পান্ডা এনক্লোজারের মধ্যে পড়ে যায়। পান্ডারা দেখতে যতটাই আদুরে, স্বভাব ঠিক ততটাও নম্র নয়। বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, পান্ডাদের বয়স ২ বছর হয়ে গেলেই তাঁদের থেকে বজায় রাখা উচিত দূরত্ব। এমনকি যারা পান্ডাদের দেখভাল করেন তাঁরাও নাকি এদের থেকে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখেন।

এমন এক পরিস্থিতিতে বিষয়টি সকলের নজরে আসতেই, বাচ্চাটিকে সেখান থেকে উদ্ধারের চেষ্টা করতে থাকেন নিরাপত্তাকর্মীরা। ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে মেয়েটির দিকে ক্রমশ ধীর গতিতে এগিয়ে আসছে দুটি পান্ডা। মেয়েটিও ভয়ে সিঁটিয়ে গিয়েছে। লাঠির সাহায্যে এক নিরাপত্তারক্ষী বাচ্চাটিকে সেখান থেকে উদ্ধারের চেষ্টা করলেও, তুলতে পারেননি। এরপরেই পরিস্থিতি বেগতিক দেখে, ওই নিরাপত্তাকর্মী লাঠি ছেড়ে কিছুটা নেমে গিয়ে বাচ্চাটির হাত ধরে টেনে তোলেন উপরে। অল্পের জন্য রক্ষা পায় মেয়েটি।

এক দর্শক গোটা এই ঘটনাটির ভিডিও করে সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করেন। ভিডিওটিতে অনেকেই কমেন্ট করে নিরাপত্তারক্ষীর বুদ্ধির প্রশংসা করছেন।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

Leave a Reply

pandit ravishankar

বিশ্বজন মোহিছে

রবিশঙ্কর আজীবন ভারতীয় মার্গসঙ্গীতের প্রতি থেকেছেন শ্রদ্ধাশীল। আর বারে বারে পাশ্চাত্যের উপযোগী করে তাকে পরিবেশন করেছেন। আবার জাপানি সঙ্গীতের সঙ্গে তাকে মিলিয়েও, দুই দেশের বাদ্যযন্ত্রের সম্মিলিত ব্যবহার করে নিরীক্ষা করেছেন। সারাক্ষণ, সব শুচিবায়ু ভেঙে, তিনি মেলানোর, মেশানোর, চেষ্টার, কৌতূহলের রাজ্যের বাসিন্দা হতে চেয়েছেন। এই প্রাণশক্তি আর প্রতিভার মিশ্রণেই, তিনি বিদেশের কাছে ভারতীয় মার্গসঙ্গীতের মুখ। আর ভারতের কাছে, পাশ্চাত্যের জৌলুসযুক্ত তারকা।