বলিউড বেশ কঠিন জায়গা হতে পারে‚ বিশেষত নিউ কামারদের জন্য | অনেকেই হয়তো ভাবে স্টার কিড যারা সিনেমার জগতে পা রেখেছেন তারা অনেক বেশি সুযোগ সুবিধা পান | সুযোগ হয়তো ওঁরা সত্যিই বেশি পান নিউ কামারদের তুলনায় কিন্তু একই সঙ্গে মনে রাখতে হবে স্টার কিডরা কিন্তু অনেক বেশি প্রতিযোগীতার মুখে পড়েন | কারণ ওঁদের প্রতিনিয়ত তাঁদের বাবা মায়েদের সঙ্গে তুলনা করা হয় | আর বলিউডের  ফার্স্ট ফ্যামেলি  কপূর খানদানের হলে তো কথাই নেই | করিশ্মা কপূর তার জলজ্যান্ত প্রমাণ | উনি কিন্তু এমনি এমনি স্টারডম পান নি‚ বহু স্ট্রাগলের পর কিন্তু উনি নিজের জায়গা পাকা করেন বলিউডে | একবার একটা সাক্ষাৎকারে করিনা বলেন যে করিশ্মার স্ট্রাগলিং পিরিয়ডে উনি প্রায় রাতেই লুকিয়ে করিশ্মাকে কাঁদতে দেখতেন |

Holi Hai

আসুন দেখে নিন করিনা কী বলেছিলেন  আমার মনে হয় করিশ্মার অভিনেত্রী হওয়ার সিদ্ধান্ত পরিবারের কেউ মেনে নেয় নি | পরিবারের কেউ ওঁকে সাপোর্ট করে নি | কেউ ভাবতেই পারে নি যে ও একদিন একজন সফল অভিনেত্রী হবে | একমাত্র আমাদের মা (ববিতা) ওর পাশে থেকেছে | ওরা দুজনে একসঙ্গে স্ট্রাগল করেছে |

 আমি রাতের পর রাত আমার দিদিকে মায়ের সঙ্গে বসে কাঁদতে দেখেছি | করিশ্মা মনোবল হারিয়ে ফেলতো | কাঁদতে কাঁদতে বলতো  মা আমি সফল হতে পারবো না | আমাকে অন্যরা সফল হতে দেবে না |  আমি একটা বড় ঘড়ির পিছনে লুকিয়ে লুকিয়ে দেখতাম ওদের | আমি অনেক কিছু দেখেছি | আমার মা আর দিদির সঙ্গে যা ঘটেছে‚ ওদের ভয়‚ দুঃখ‚ বহু কিছুর সাক্ষী আছি আমি | করিশ্মাকে অনেক সংগ্রাম করতে হয়েছে | দিদির অবস্থা দেখে আমিও খুব দুঃখ পেতাম |

বেবো আরো যোগ করেন যে মা আর দিদির স্ট্রাগল দেখে উনি নিজে এতটাই দৃঢ়তা পেয়েছেন যে যে কোনো পরিস্থিতি বা যার কারুর মুখোমুখি দাঁড়াতে দ্বিধা করেন না উনি |

আরও পড়ুন:  ভাবা যায়!! হোয়াটসঅ্যাপ-এ ৬৭-র বলি-অভিনেত্রীকে অশ্লীল ভিডিও পাঠাচ্ছে ৩৮-এর যুবক!! সাড়া না দিলে অসম্মানের হুমকি??

NO COMMENTS