মুরগির ডিমে মানুষের বীর্য মিশে তৈরি অদ্ভুত জীব !

সোশ্যাল মিডিয়ার হাত ধরে কত ঘটনাই রাতারাতি ভাইরাল হয়। কিন্তু সম্প্রতি এক আজব পরীক্ষামূলক ভিডিও ভাইরাল হতেই শোরগোল পড়ে গিয়েছে নেট দুনিয়ায়। সেখানে দাবি করা হয়েছে, মুরগির ডিমের সঙ্গে মানুষের বীর্য মেশালে জন্ম নিতে পারে দানব! কিন্তু এমনটাও সম্ভব ? কী রয়েছে সেই ভিডিওতে ?

ভিডিওতে দেখা গিয়েছে এক রাশিয়ান ব্যক্তি যার মুখ দেখা যায়নি, কেবল তাঁর হাত দেখা গিয়েছে এবং গলার আওয়াজ শোনা গিয়েছে। রাশিয়ান ভাষায় ওই ব্যক্তি  জানিয়েছেন, একটি সিরিঞ্জের মধ্যে তিনি নিজের বীর্য ভরে রেখেছেন। এবার একটি মুরগির ডিমের গায়ে একটি সরু ছিদ্র করে ওই সিরিঞ্জে থাকা বীর্য তিনি ইনজেক্ট করছেন ওই ডিমের মধ্যে। এর ফলে খানিকটা বীর্য ডিমের খোলার গা বেয়ে বাইরে বেরিয়ে এল। এবার বীর্য ভরা সেই ডিমটি তিনি একটি প্লাস্টিকের কৌটোতে ভরে নিয়ে তারপর একটি পশমের থলিতে রেখে দেওয়া হল।

দাবি করা হচ্ছে, এইভাবে ওই থলিসমেত  কৌটোটি একটি অন্ধকার এবং গরম জায়গায় রেখে দিতে হবে দশ দিন। দশ দিন পরে থলি থেকে বের করে ডিমটিকে ওই প্লাস্টিকের কৌটোতে রেখেই ফাটানো হচ্ছে। আর তার পরেই চোখের সামনে ভেসে উঠছে এক অদ্ভুত ঘটনা। দেখা যাচ্ছে, ডিমের মধ্যে থেকে বেরিয়ে আসছে খানিকটা কালচে পিচ্ছিল পদার্থ এবং তার মধ্যে রয়েছে সাদা রঙের এক অদ্ভুত জিনিস। একটি চিমটেতে করে জিনিসটি তুলে ধরতেই বোঝা যাচ্ছে, তৈরি হয়েছে এক অদ্ভুত জীব।

প্রাগৈতিহাসিক যুগে গ্রিসে ‘হোমাকিউলাস’ টার্মটি প্রচলিত ছিল। যার অর্থ গরুর শরীরে মানুষের বীর্য প্রবেশ করানোর মধ্যে দিয়ে তৈরি করা হিউম্যানয়েড ফিগার। তবে এক্ষেত্রে বিষয়টা একেবারেই আলাদা। তবে এই ভিডিওটির সত্যতা নিয়ে নেটিজেন মনে প্রশ্ন উঠেছে। অনেকে আবার গোটা বিষয়টি ভ্রান্ত বলেও দাবি করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here