টিকিটে যাত্রার তারিখে লেখা ৩০১৩ সাল , অর্থাৎ ১০০০ বছর পরের তারিখ । বছর পাঁচেক আগে রেলের টিকিট এমন তারিখ সমেতই হাতে পেয়েছিলেন উত্তরপ্রদেশের সাহারানপুরের বাসিন্দা বিষ্ণুকান্ত শুক্লা (৭৩)। তাও খোদ রেল কাউন্টার থেকে কাটা টিকিট ।  ২০১৩ সালের ১৯ নভেম্বর হিমগিরি এক্সপ্রেসে সাহারানপুর থেকে জুনপুর যাচ্ছিলেন তিনি । বন্ধুর স্ত্রী বিয়োগ হয়েছে খবর শুনেই , তাড়াহুড়ো করে তাঁর বাড়িতে যাচ্ছিলেন এই প্রবীন । যেহেতু রেল কাউন্টার থেকে কাটা টিকিট তাই তারিখ পরীক্ষা করার প্রয়োজন বোধ করেননি ।

Banglalive

ট্রেনে উঠতেই বাঁধে বিপত্তি । রেলের টিকিট পরীক্ষক টিকিটে ভুল তারিখ দেখে জরিমানা ধার্য করেন । সন্দেহ করেন ভুয়ো টিকিটে যাত্রা করছেন ওই যাত্রী । জে ভি জৈন ডিগ্রি কলেজের অবসরপ্রাপ্ত হিন্দি বিভাগের অধ্যাপক তিনি ।নকল টিকিটে তিনি যাত্রা করছেন না , এটা টিকিট কাউন্টারের গাফিলতি । বারংবার অনুরোধ জানানো হলেও গ্রাহ্য করেননি টিকিট পরীক্ষক ।৮০০ টাকা জরিমানা ধার্য করেন।জরিমানা দিতে অস্বীকার করায় মোরাদাবাদে জোর করে নামিয়ে দেওয়া হয় ওই প্রবীণ যাত্রীকে ।

 বন্ধুর বাড়ি আর যাওয়া হয়নি , সাহারানপুরে ফিরে ভারতীয় রেলের বিরুদ্ধে টিকিটসহ ক্রেতা সুরক্ষা আদালতে মামলা দায়ের করেন অধ্যাপক । গত পাঁচবছর পর গত মঙ্গলবার সেই মামলার রায় ঘোষণা করে আদালত । রেল কর্তৃপক্ষকে ক্ষতিপূরণ বাবদ ১০০০০ টাকা জরিমানা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয় । এছাড়াও প্রবীণ নাগরিকের সঙ্গে অমানবিক ব্যবহার ও মানসিক হেনস্থার কারণে আরো ৩০০০ টাকা ক্ষতিপূরণের নির্দেশ দেওয়া হয় । প্রবীণ নাগরিককে মাঝপথে নামিয়ে দেওয়ায় রেলের পরিষেবাগত ত্রুটিরও দিকটিও নজরে আসে ।

দেরিতে হলেও , শেষ পর্যন্ত যে সুবিচার পেয়েছেন এতেই খুশি বৃদ্ধ অধ্যাপক । অন্তত আর ভুয়ো টিকিটে যা্ত্রার অপবাদ নিয়ে দিন কাটাতে হবে না । তবে কেন ওইদিন ওরকম ভুল টিকিট ছাপা হয়েছিল , এবিষয়েও এখনো পর্যন্ত কোনো তদন্তে নামেনি রেল । এমনকি ঘটনা নিয়েও মন্তব্য করতে নারাজ রেল কর্তৃপক্ষ ।

আরও পড়ুন:  'রামায়ণে সীতা ছিলেন টেস্ট টিউব বেবি-র উদাহরণ '

1 COMMENT