এই কারাবাস ছেড়ে যেতে মনমরা কয়েদিরা

345

মেক্সিকোর মারিয়া আইল্যান্ডস পৃথিবীর এমনই একটি কারাবাস ছিল যেখানে অপরাধীরা ছিল আংশিক বন্দি | কারণ মূল ভূখন্ড থেকে বিচ্ছিন্ন এই দ্বীপে সাধারণ মানুষের বসবাস নেই | এখানে শুধু অপরাধীদের বসবাস | অপরাধীদেরকে এখানে চারদেওয়ালের ঘেরাটোপেও থাকতে হয় না | কিন্তু অপরাধীদের কাছ থেকে মুক্তির সেই একফালি আকাশও শেষপর্যন্ত কেড়ে নেওয়া হচ্ছে |

১৯০৫এ প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিল মারিয়া আইল্যান্ডসের এই বিশেষ কারাবাসটি | কারাবাসটিতে ৬৪‚০০০ জন অপরাধী আশ্রয় পেয়েছেন | গত ফেব্রুয়ারি মাসে নতুন রাষ্ট্রপতি আন্দ্রেজ ম্যানুয়েল লোপেজ ওব্রাদর ঘোষণা করেন মারিয়া আইল্যান্ডস তার সৌন্দর্য ও বায়োডায়ভার্সিটির জন্য পরিচিত | সেখানেই অপরাধের শাস্তি দেওয়ার জন্য কারাগার থাকলে তার মাহাত্ম্য ক্ষুণ্ণ হয় | তাই অপরাধীদেরকে অন্য জায়গায় সরিয়ে নিয়ে গিয়ে সেখানে সাংস্কৃতিক কেন্দ্র স্থাপন করা হবে |

তারপর থেকেই বন্দিদের আইল্যান্ডস থেকে স্থানান্তরিত করা হতে শুরু | গত মাসেই ৫৮৪ জনকে মূল ভূখন্ডে স্থানান্তরিত করা হয় | শাস্তির মেয়াদ প্রায় শেষ হয়ে এসেছিল, সেরকম বেশ কয়েকজনকে মুক্তিও দিয়ে দেওয়া হয় | কিন্তু এই দ্বীপের কারাবাস ছেড়ে যেতে মনমরা হয়ে পড়েছেন কয়েদিরা | 

কারণ মারিয়া আইল্যান্ডস তাদের কাছে কারাবাসের থেকে অনেক বেশি ছিল | এমন অনেক কয়েদি আছেন যাঁরা পরিবারসহ মারিয়া আইল্যান্ডসে বসবাস করতেন | তারা সেই স্বাধীনতা মুল ভূখন্ডে গেলে আর ফিরে পাবেন না‚ পাবেন না খোলা আকাশ‚ মুক্ত বাতাসের স্পর্শ | ভালবেসে রাখলে সবই থাকে‚ ঠিক যেমন কারাবাসের কষ্টও লঘু করে দিয়েছিল মারিয়া আইল্যান্ডসে অপরাধীদের কারাবাসের মুক্তি |

Advertisements

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.