২০১৫ সালে যেন জীবনটাই থমকে গিয়েছিল সঙ্গীতার। দেশরক্ষার কাজে সীমান্তে পোস্টেড ছিলেন স্বামী শিশির মাল। জম্মু ও কাশ্মীরের বারামুলায় এক জঙ্গিকে খতম করে শহিদ হয়েছিলেন গোর্খা রাইফেলস-এর রাইফেলম্যান শিশির । তাই স্বামীর মতোই এবার নিজের কাঁধে তুলে নিলেন দেশরক্ষার দায়িত্ব।

আচমকা স্বামীর শহিদ হওয়ার খবর আসায় স্তব্ধ হয়ে গিয়েছিলেন সঙ্গীতার জীবন। নষ্ট হয়ে গিয়েছিল গর্ভে থাকা সন্তানও। চরম মানসিক বিপর্যয়ের ফলেই এই গর্ভপাত, জানিয়েছিলেন চিকিৎসকরা । ২০১৩ সালে শিশিরের সঙ্গে বিয়ে হওয়ার আগে শিক্ষিকার কাজ করতেন তিনি। এরপর ২০১৬ সালে রানিখেতে ভারতীয় সেনার পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে স্বামীর মরণোত্তর সেনা মেডেল নেওয়ার সময়েই বদলে যায় সঙ্গীতার মন। জানান, সেনাবাহিনীতে যোগ ইচ্ছুক তিনি। শিশিরের সতীর্থরাও অনুপ্রাণিত করেন তাঁকে।

তিন বছর কঠোর পরিশ্রমের পর সাফল্য আসে শর্ট সার্ভিস কমিশনের পরীক্ষায়। এরপর গত নয়ই মার্চ চেন্নাইয়ের অফিসার ট্রেনিং অ্যাকাডেমিতে ট্রেনিং শেষে সরাসরি লেফটেন্যান্ট পদে যোগ দেন সঙ্গীতা। এই প্রসঙ্গে তাঁর দেওর সুশান্ত মাল বলেন, “অনেক কষ্ট সহ্য করেছে আমাদের পরিবার। কিন্তু এটা আমাদের কাছে খুব গর্বের বিষয় যে বউদি একজন অফিসার হিসেবে ভারতীয় সেনায় যোগ দিয়েছেন। আমার বাবা বা দাদা সেনাবাহিনীতে কাজ করলেও পরিবার থেকে লেফটেন্যান্ট পদে এই প্রথম কেউ যোগ দিল।”

Banglalive-8
আরও পড়ুন:  জবাব দিয়েছিলেন ডাক্তার‚ ক্যান্সারকে হারিয়ে গাঁটছড়া বাঁধলেন 'মিরাক্যল' ম্যাডেলিন

NO COMMENTS