হাঁটু অবধি চামড়ার জুতো পরে আছে ৫০০ বছরের প্রাচীন নরকঙ্কাল

হাঁটু অবধি চামড়ার জুতো পরে আছে ৫০০ বছরের প্রাচীন নরকঙ্কাল

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

লন্ডনে এক বিশাল এলাকা জুড়ে চলছিল নর্দমা সংস্করণের কাজ । কিন্তু মাটি খুঁড়তে গিয়ে বেড়িয়ে এল এক বিশালাকার কঙ্কাল ! প্রত্নতাত্বিকেরা জানাচ্ছেন, এই কঙ্কালের বয়স প্রায় ৫০০ বছর। কিন্তু তাজ্জবের বিষয়ে এটাই যে, কঙ্কালটির পরনে হাঁটু পর্যন্ত লম্বা চামড়ার জুতো।

দ্য মিউজিয়ম অব লন্ডন-এর পক্ষ থেকে ঘোষণা করা হয় যে, কঙ্কালটি পাওয়া যায় টেমস নদীর তীরে লন্ডন টাওয়ারের কাছে, যেখানে নদী বয়ে চলেছে নিম্নগতিতে । বিশেষজ্ঞ বেথ রিচার্ডসন জানিয়েছেন, এই কঙ্কালের বৈশিষ্ট্য পরখ করে  সেই সময়কার মানুষের জীবনযাত্রা সম্পর্কে একটা সম্যক জ্ঞান লাভ করা যায় । 

কঙ্কালটির চামড়ার জুতো দেখে বিশেষজ্ঞরা এও মনে করছেন যে, তিনি খুব শৌখিন জীবনযাত্রায় অভ্যস্ত ছিলেন । যে চামড়ার জুতোটি পাওয়া গিয়েছে তাতে করে মনে করা হচ্ছে যে তিনি খুব সম্ভবত সমুদ্রের সঙ্গে যুক্ত কোনও কাজে নিযুক্ত ছিলেন । তিনি পেশায় হয়ত নাবিক বা জেলে ছিলেন । খুব সম্ভবত ৩৫ বছর বয়সে তাঁর মৃত্যু হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। মাটির স্তুপের মধ্যে তাঁর দেহটির যে অবস্থান দেখা গিয়েছে তাতে কঙ্কালটির একটা হাত মাথার উপর এবং আর একটা হাত মাথার পাশে ভাঁজ করা অবস্থায় পাওয়া গিয়েছে ।

খনন করে উদ্ধারকার্য চালিয়ে যারা কঙ্কালটিকে উদ্ধার করেছে তাঁদের কথায় মৃতদেহটি কেউ মাটিতে কবর দেননি । তাহলে হয়ত মাটির উপরিস্তর থেকে কঙ্কালটি উদ্ধার করা সম্ভব হত না । কঙ্কালটির হাড়গুলি পরীক্ষা করে কোনওরকম আঘাতের চিহ্ণ পাওয়া যায়নি।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

Leave a Reply

Handpulled_Rikshaw_of_Kolkata

আমি যে রিসকাওয়ালা

ব্যস্তসমস্ত রাস্তার মধ্যে দিয়ে কাটিয়ে কাটিয়ে হেলেদুলে যেতে আমার ভালই লাগে। ছাপড়া আর মুঙ্গের জেলার বহু ভূমিহীন কৃষকের রিকশায় আমার ছোটবেলা কেটেছে। যে ছোট বেলায় আনন্দ মিশে আছে, যে ছোট-বড় বেলায় ওদের কষ্ট মিশে আছে, যে বড় বেলায় ওদের অনুপস্থিতির যন্ত্রণা মিশে আছে। থাকবেও চির দিন।