১২ বছর বয়সে ১৩৫ টি বই লিখে বিশ্ব রেকর্ড গড়ল ‘আজকের অভিমন্যু’

mrigendra raj

১২ বছরের ছেলে, লিখে ফেলেছে ১৩৫ খানা বই। ‘আজ কা অভিমন্যু’ নামে ঢুকে পড়েছে সংবাদপত্রের শিরোনামে। এ এক অনন্য বিশ্ব রেকর্ড। এই লেখকের নাম শ্রীমান মৃগেন্দ্র রাজ। বাড়ি অযোধ্যায়। বিখ্যাত মানুষদের জীবনী লিখছে, পাশাপাশি বহু ধর্মীয় চরিত্রদের নিয়েও বই আছে তার।

৬ বছর বয়স থেকেই লিখছে মৃগেন্দ্র। প্রথম বইটি কবিতার। লন্ডনের ওয়ার্ল্ড রেকর্ড ইউনিভার্সিটি থেকে ডক্টরেট করার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে তাকে। সাহিত্য জগতে অবদানের জন্য সে সবার কাছে এখন ‘আজ কা অভিমন্যু’। ইতিমধ্যেই চারটি বিশ্ব রেকর্ডের সম্মান তার ঝুলিতে। এছাড়াও পেয়েছে আরও নানা পুরষ্কার। তার সঙ্গে কথা বলতে গেলে সে জানায় রামায়ণের ৫১ টি চরিত্র নিয়ে বই আছে তার। ‘ রামায়ণ মহাকাব্য পড়ে আমি সেখান থেকে ৫১ টি চরিত্র নিয়ে বিশ্লেষণ করেছি নিজের মত। রামায়ণ পড়ে যে জ্ঞান অর্জন করেছি, তা কাজে লেগেছে বই লিখতে। আমার লেখা বইগুলির আয়তন প্রায় ২৫ থেকে ১০০ পাতা অবধি’।

মৃগেন্দ্রর মা একটি প্রাইভেট স্কুলের শিক্ষিকা এবং বাবা চাকরি করেন আখ বিভাগে। সম্প্রতি উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে নিয়েও একটি বই লিখেছে মৃগেন্দ্র। সারা পৃথিবী অবাক হয়ে গেছে এই বিস্ময় বালকের লেখনীতে। এই টুকু বয়সে এত গুরুগম্ভীর, তথ্যপূর্ণ বিষয়ে লেখা তো চাট্টিখানি কথা নয়! যথেষ্ট পড়াশোনা ও গবেষণা করেই বইগুলো লিখেছে মৃগেন্দ্র। এই বয়সেই যদি এই হারে ও এই মানে লেখে, তাহলে সারা জীবনে সে আরও কত কী অবদান রাখবে তা কল্পনারও অতীত। ভারতের গৌরব এই বিস্ময় বালকের কৃতিত্বকে স্বীকৃতি দিয়েছে গোটা পৃথিবী।

Advertisements

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.