পর্দার আড়ালেই বিপ্লব‚ রেসিং ট্র্যাকে তুফানি চমক সৌদি কন্যার

এতদিন পর্যন্ত যে দেশে মহিলাদের গাড়ি চালানো নিষিদ্ধ ছিল, এবার স্টিয়ারিং হাতে নজির গড়লেন সৌদি তনয়া রীমা আল জুফ্‌ফালি। তাও আবার যে-সে গাড়ি নয়, একেবারে রেসিং কার। এতদিন পর্যন্ত সৌদি আরবে মহিলাদের গাড়ি চালানোর অনুমতি ছিল না। ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে সৌদি আরবের রাজা সলমন জানান, মহিলাদের গাড়ি চালানোর ওপর এতদিনের নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হবে।

২৬ বছরের রীমাই সেদেশের প্রথম মহিলা যিনি ২০১৮ সালের অক্টোবর মাসে একজন রেসার হিসেবে লাইসেন্স অর্জন করেন এবং রেসিং-এ অংশ নেন। খুব শীঘ্রই তিনি এমআরএফ চ্যালেঞ্জের চূড়ান্ত রাউন্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। সংবাদমাধ্যমকে রীমা জানিয়েছেন, কলেজের পাঠ চলাকালীন ফর্মুলা কার রেসিং-এর প্রশিক্ষণ নিয়েছেন তিনি। রেসিং এবং ড্রাইভিং-এর প্রতি বরাবরই তাঁর ভাললাগার জায়গা।

রীমাকে এখন সকলে ‘চ্যালেঞ্জ মেকার’ হিসেবে অভিহিত করলেও, তাঁর জন্য বিষয়টি খুব সহজ ছিল না।বিদেশ থেকে পড়াশোনা শেষ করে যখন তিনি দেশে ফেরেন, তখন তাঁর ইচ্ছে ছিল রেসিং শুরু করার। যখন তিনি শুরু করবেন বলে মনস্থির করেন, তখন তিনি কেবল নিজের কথাই ভেবেছেন, তাঁর পুরো দেশ যে পাশে আছে তা তিনি বুঝতে পারেননি।

জীবনে একজন শ্রেষ্ঠ রেসার হওয়ার স্বপ্ন ছিল তাঁর দু’চোখে, যা ধীরে ধীরে পূর্ণতা পেতে চলেছে। তিনিও যে কোনওদিন কারওর অনুপ্রেরণা হতে পারেন, তাঁর জন্য সেতাই অনেক গর্বের। এই চিন্তাধারা তাঁকে ভবিষ্যতে আরও ভাল কাজ করআর ইন্ধন যোগাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here