সমুদ্রের জল বিকল্প জ্বালানির উৎস‚ মত বিজ্ঞানীদের

পর্যাপ্ত জ্বালানির অভাব রয়েছে গোটা বিশ্বে। পেট্রল-ডিজেল সহ খনিজ তেলের ভাণ্ডার তলানিতে এসে ঠেকেছে। এই পরিস্থিতিতে বিকল্প জ্বালানির আবিষ্কার করতে গিয়ে ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক গ্রেগ রাউ জানিয়েছেন, সূর্যের আলো এবং সমুদ্রের নোনা জল থেকে বিকল্প জ্বালানি পাওয়া সম্ভব।

বিশেষ এক ইঞ্জিনের সাহায্যে সূর্যের আলো ব্যবহার করে সমুদ্রের লবণাক্ত জল থেকে হাইড্রোজেন আলাদা করতে সক্ষম হয়েছেন গবেষকরা। এই বিশেষ ইঞ্জিনও তাঁদেরই আবিষ্কার। এই বিশেষ পদ্ধতিতে উৎপন্ন হাইড্রোজেন বিকল্প জ্বালানি হিসেবে ব্যবহার করা যাবে বলে মনে করছেন তাঁরা।

গবেষক গ্রেগ রাউ জানিয়েছেন, উৎপন্ন হাইড্রোজেন জ্বালানি হিসেবে ব্যবহার করে যানবাহন চালাতে সক্ষম হয়েছে। এর অর্থ এই যে, সমুদ্রের লবণাক্ত জল থেকে উৎপন্ন হাইড্রোজেন প্রতিদিনের সাধারণ জ্বালানি হিসেবে এবং যানবাহনের জ্বালানি হিসেবেও ব্যবহার করা যাবে। ভবিষ্যতের জন্য এই গবেষণা খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন তিনি। ২০২০ এর মধ্যে এই ধরনের জ্বালানি এবং বিশেষ ধরণের এই ইঞ্জিন সাধারণ মানুষের হাতে তুলে দিতে পারবেন বলে মনে করছেন বৈজ্ঞানিকরা।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

One Response

Please share your feedback

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ওয়র্থ ব্রাদার্স সংস্থার লেটারহেড

মায়ার খেলা

চার দিকে মায়াবি নীল আলো। পেছনে বাজনা বাজছে। তাঁবুর নীচে এ প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে উড়ে বেড়াচ্ছে সাদা ঝিকমিকে ব্যালে