মানুষখেকো ‘সুন্দরী’কে ধরতে ব্যর্থ ওডিশা‚ শরণাপন্ন মধ্যপ্রদেশের

মানুষখেকো ‘সুন্দরী’কে ধরতে ব্যর্থ ওডিশা‚ শরণাপন্ন মধ্যপ্রদেশের

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

একে বাঘিনী , তায় সুন্দরী । তাঁর নাগাল পেতে যে নাস্তানাবুদ হতে হবে এমনটাই তো স্বাভাবিক । তবে নাস্তানাবুদের পরিমাণটা যে এতটা হতে পারে কল্পনাও করতে পারেননি বনকর্মীরা ।

উড়িষ্যার সাতকোশিয়া অভয়ারণ্যে বাস সুন্দরীর । সম্প্রতি তাকেই মধ্যপ্রদেশে স্থানান্তরিত করার সিদ্ধান্ত নেয় উড়িষ্যা সরকার । সুন্দরীর নাগাল পেতে প্রথমে উড়িষ্যার কুমারী গ্রামের কাছে একটি ছাগলকে টোপ হিসেবে রাখেন বনকর্মীরা । আশেপাশে ছড়িয়ে রাখা হয় পুরুষ বাঘের মূত্রও । গন্ধের টানে হাজিরও হয় সুন্দরী। তবে কিছুক্ষণের মধ্যেই বুঝতে পেরে পালিয়ে যায় । ইতিমধ্যেই বাঘিনীর নাগাল পেতে তিনবার ব্যর্থ হয়েছেন বনকর্মীরা ।

সুন্দরীকে পাকড়াও করতে ইতিমধ্যেই মধ্যপ্রদেশের কানহা ন্যাশানাল পার্ক ও পেঞ্চ ব্যাঘ্র সংরক্ষণ দফতর থেকে দুটি দলকে আনা হয়েছে । তাঁরাও আর কয়েকদিনের মধ্যেই অভিযান শুরু করবে । উড়িষ্যার বন দফতরের পক্ষ থেকে জানানো হয় , বিগত দুদিন ধরে সুন্দরীকে ঘুম পাড়াতে ব্যর্থ হয়েছে বনকর্মীরা । প্রতিবারই নির্দিষ্ট জায়গা থেকে দূরে সরে থাকছে এই বাঘিনী । সুন্দরীকে শেষ বাঘমুন্ডির পাহাড়ি জঙ্গলে দেখা গিয়েছে ।

কয়েক বছর আগে সুন্দরীকে আন্ত্ঃরাজ্য স্থানান্তরের মাধ্যমে মধ্যপ্রদেশের বান্ধবগড় থেকে উড়িষ্যায় আনা হয় । তবে সম্প্রতি বনাঞ্চল সংলগ্ন গ্রামে উপদ্রব শুরু করেছে সুন্দরী । ইতিমধ্যেই দুজন প্রাণ হারিয়েছে সুন্দরীর আক্রমণে । তাই আবারও তাকে স্থানান্তরের সিদ্ধান্ত নিয়েছে উড়িষ্যা সরকার ।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

Leave a Reply

pandit ravishankar

বিশ্বজন মোহিছে

রবিশঙ্কর আজীবন ভারতীয় মার্গসঙ্গীতের প্রতি থেকেছেন শ্রদ্ধাশীল। আর বারে বারে পাশ্চাত্যের উপযোগী করে তাকে পরিবেশন করেছেন। আবার জাপানি সঙ্গীতের সঙ্গে তাকে মিলিয়েও, দুই দেশের বাদ্যযন্ত্রের সম্মিলিত ব্যবহার করে নিরীক্ষা করেছেন। সারাক্ষণ, সব শুচিবায়ু ভেঙে, তিনি মেলানোর, মেশানোর, চেষ্টার, কৌতূহলের রাজ্যের বাসিন্দা হতে চেয়েছেন। এই প্রাণশক্তি আর প্রতিভার মিশ্রণেই, তিনি বিদেশের কাছে ভারতীয় মার্গসঙ্গীতের মুখ। আর ভারতের কাছে, পাশ্চাত্যের জৌলুসযুক্ত তারকা।