এটি এম থেকে লক্ষাধিক টাকা তছরুপ , সঙ্গে সরকারি সম্পত্তি নষ্ট । তার ওপর অপরাধী ফেরার । ধরা পড়লে নির্ঘাত কয়েক বছর জেলের ঘানি কপালে লেখা । তবে সেই আসামি যদি মানুষ না হয়ে কোনো প্রাণী হয় ? এই টাকা চুরি ও নষ্টের দায়ে কিভাবে গ্রেফতার করা হবে আসামিকে ? এই ভেবেই আপাতত দিশেহারা আসামের তিনসুকিয়া জেলার পুলিশ ।

Banglalive

তিনসুকিয়ার জেলার স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়ার এটিএম । গত ১৯ শে মে সেখানেই মজুত করা হয় নগদ ৩০ লক্ষ টাকা । পরের দিন থেকেই টাকা বেরানো বন্ধ হয়ে যায় মেশিন থেকে । একাধিক অভিযোগ জমা পড়তেই কর্তৃপক্ষ যান্ত্রিক গোলযোগের কারণ চিহ্নিত করেন । এদিকে মেশিনে বন্দি প্রায় ৩০ লক্ষের কাছাকাছি টাকা । এটিএম মেশিন সারাইয়ের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় ।গত ১১ই জুন কলকাতার প্রযুক্তি দল এসে এটিএম মেশিন খুলতেই চোখ কপালে । লোহার বাস্কের ভিতর কুচি কুচি হয়ে পড়ে ৫০০ ও ২০০০ টাকার অজস্র নোট । কোনো রকমে কাগজের স্তূপ সরিয়ে উদ্ধার করা হয় ১৭ লক্ষ দশ হাজার টাকা । অর্থাৎ নষ্ট টাকার পরিমাণ প্রায় ১২ লক্ষ ।

প্রাথমিক অনুমানে মনে করা হচ্ছে কোনোভাবে মেশিনের মধ্যে ঢুকে পড়েছিল ওই ইঁদুর বাহিনী , এদিকে যন্ত্র অকেজো অবস্থায় পড়ে । সুবর্ণ সুযোগ কাজে লাগিয়ে মনের আনন্দে কুচিকাটা করেছে ১২ লক্ষ টাকা । নিরীহ প্রাণী , এসেছিল হয়তো খাবারের খোঁজে । খাবার তো পায়নি । তবে অজান্তে যা করেছে তাতে কার্যত মাথায় হাত কর্তৃপক্ষের । ১২ লক্ষ টাকা জলে । না সেই টাকা উদ্ধার হবে , না দোষীরা শাস্তি পাবে । আপাতত এটিএম দেখভালের দায়িত্বের থাকা সংস্থার বিরুদ্ধে এফ আই আর দায়ের করা হয়েছে । তিনসুকিয়া জেলার সুপারিনটেন্ডন্ট অব পুলিশ জানান গত ১১ই জুন মেশিন খুলে প্রথম এই ঘটনা চোখে পড়ে । কাটা টাকার স্তূপের মাঝে বেশ কয়েকটি ইঁদুরের মৃতদেহ উদ্ধার হয় । গোটা ঘটনার তদন্ত চলছে।

আরও পড়ুন:  রানির লুটিয়ে পড়া আঁচলের আড়ালে কী 'নিষিদ্ধ' জিনিস পেলেন রাজা...বিপত্তারিণী ব্রতপালনের মাহাত্ম্য

NO COMMENTS