শর্মিলা ঠাকুরের সঙ্গে বউমা করিনা কপূরের সম্পর্ক কেমন?

হতে পারে করিনা কপূরের সঙ্গে সইফ আলি খানের এটা দ্বিতীয় বিয়ে | কিন্তু সইফের পরিবারের সবাই করিনা কপূরকে খুব ভালোবাসেন | তা সে সইফের আগের পক্ষের ছেলে মেয়েই হোক বা সইফের মা আর বোন | অন্যদিকে করিনাও সবার সঙ্গেই মানিয়ে গুছিয়ে আছেন |

সত্যি কথা বলতে করিনার সঙ্গে ওঁর শাশুড়ির সম্পর্ক খুব ভালো | বিশ্বাস না হলে নিচের
উদাহরণগুলোতে একবার চোখ বুলিয়ে নিন |

১) করিনা‚ শর্মিলার বিয়ের পোশাক পরে বিয়ে করেছিলেন : হাতে গোনা যে কয়েকজন কনে‚ শাশুড়ি মায়ের বিয়ের পোশাক পরে বিয়ে করেছেন‚ করিনা তাদের মধ্যে একজন | বেশিরভাগ কনেরাই লেটেস্ট ফ্যশনের পোশাক পরে বিয়ের পিঁড়িতে বসতে পছন্দ করেন | কিন্তু করিনা সেই রাস্তায় হাঁটেননি | শর্মিলা ঠাকুরের ২৭ ডিসেম্বর‚ ১৯৬৯ সালে মনসূর আলি খান পতৌদির সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল | আর সেই পোশাক পরেই করিনা ১৬ অক্টোবর‚ ২০১২-তে সইফের সঙ্গে মালা বদল করেন |

২) শাশুড়ির সামনে বিকিনি পরতে লজ্জা পান না করিনা : হ্যাঁ এটা সত্যি | বেড়াতে গিয়ে শর্মিলার সামনে বিকিনি পরে ঘুরতে দেখা গেছে করিনাকে | করিনা নিজেই একবার একটা সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন ‘আমাকে নিজের মেয়ে ভাবেন শর্মিলাজি | বেড়াতে গিয়ে ওঁর সামনে বিকিনি পরেছিলাম | উনি কিছুই মনে করেননি | এটা খুব স্বাভাবিক তাই না? আমার মা থাকলেও আমি এটাই করতাম |’

৩) শর্মিলাকে নিজের আদর্শ মনে করেন করিনা : করিনা এই কথা নিজের মুখেই বহুবার বলেছেন | উনি শর্মিলা ঠাকুরের মত কেরিয়ার এবং সংসার দুটোই সমানভাবে ম্যানেজ করতে চান | করিনার কথায় ‘আমার শাশুড়ি মা সংসার এবং কেরিয়ার খুব সুন্দরভাবে ম্যানেজ করেছেন | একদিকে তিন সন্তানকে যেমন মানুষ করেছেন তেমনি অন্যদিকে একের পর এক হিট ছবিও দিয়েছেন | এক কথায় উনি একজন সুপারউম্যান | উনি আমার আদর্শ | আমি ওঁর মত হতে চাই |’

৪) যখন ই সুযোগ পান বউমার প্রশংসা করেন শর্মিলা : বউমা সম্পর্কে কথা বলতে গিয়ে শর্মিলা বলেন ‘ ভীষণ ঠান্ডা মাথার মেয়ে করিনা | টাইগার যখন অসুস্থ ছিলেন করিনা প্রায় রোজই একবার করে হাসপাতালে আসত | খুব সহজেই সবার সঙ্গে মিশতে পারে ও | করিনা খুব নম্র আর কারওর ব্যাপারে কোনোরকম অহেতুক কৌতূহল দেখাতে দেখিনি কোনোদিন ওকে |’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here