কথায় বলে, কষ্ট করলে কেষ্ট মেলে| এই কথা শুধু সাধারণদের জন্য নয়| অ-সাধারণদের জন্যও| আজ বলব বর্তমানের এমন এক অন্যতম সেরা পরিচালকের গল্প যিনি আপনার-আমার মতোই কেরিয়ারের শুরুতে ‘স্ট্রাগল’ করেছেন।

Banglalive

ঘটনাটি ১৯৯৫-এর| তাব্বু ও অজয় দেবগণের ‘হকিকত’ তখন সুপারহিট। সেই ছবির শুটিং চলাকালীন এক জন স্পটবয় নায়িকার শাড়ি ইস্ত্রি করার দায়িত্বে ছিলেন। আজ সেই স্পটবয়ই বলিউডের শীর্ষস্থানীয় এক পরিচালক। শুধু তাই নয়, তব্বু ও অজয় দেবগণ জুটিকেও বহু বছর পর বড়পর্দায় ফিরিয়ে এনেছেন সেই পরিচালক। কে সেই পরিচালক?

বলিউডের পুরনো ছবির এক জন সেরা স্টান্টম্যান এম বি শেট্টির ছেলে রোহিত শেট্টি। যাঁর পরিচালনায় ইতিমধ্যেই বলিউড পেয়েছে, ‘গোলমাল’ সিরিজ, ‘দিলওয়ালে’, ‘চেন্নাই এক্সপ্রেস’-এর মতো হিট ছবি।

রোহিত পরিচালনার পাশাপাশি, এক জন দক্ষ সঞ্চালকও। এর আগে ‘খতরো কে খিলাড়ি’ নামক গেম শো-তে সঞ্চালনায় নজর কেড়েছিলেন তিনি। সম্প্রতি করণ জোহরের সঙ্গে টেলিভিশনের জনপ্রিয় শো ‘ইন্ডিয়াস নেক্সট সুপারস্টার’-এর বিচারক হিসেবে দেখা যাচ্ছে রোহিতকে। সেখানেই নাকি একটি এপিসোডে, পরিচালনায় আসার আগে তাঁর ‘স্ট্রাগল’ নিয়ে আলোচনা করেছেন রোহিত।

এক সাক্ষাৎকারে রোহিত জানিয়েছেন, শুটিং সেটে এক জন স্পটবয় হিসেবে কেরিয়ার শুরু তাঁর। ‘হকিকত’-এর সেটে তব্বুর শাড়ি ইস্ত্রি করতেন। একবার কাজলের মেক-আপ করাতেও সাহায্য করেছিলেন।

সেই সময় অজয় দেবগণের বেশ কয়েকটি ছবি যেমন, ‘ফুল অওর কাঁটে’, ‘সুহাগ’, ‘প্যায়ার তো হোনা হি থা’— ছবিগুলিতে সহকারী পরিচালক হিসেবেও কাজ করেছিলেন রোহিত। পরবর্তীতে ২০০৩-এ সেই অজয় দেবগণেরই ‘জমিন’ ছবিতে প্রথম পরিচালনা করেন রোহিত।

রোহিত শেট্টি এখন বলি মহল্লার সেরা পরিচালকদের একজন। তাঁর ছবি মানেই ১০০ কোটির ক্লাব। গত বছর অজয় দেবগণ, তব্বুর মতো আরও বেশ কয়েকজন অভিনেতাকে নিয়ে তাঁর ‘গোলমাল এগেইন’ প্রায় ২০০ কোটি টাকার ব্যবসা করেছিল।

আরও পড়ুন:  চুরির দায় দীপিকার বিরুদ্ধে!

NO COMMENTS