স্যুইমস্যুট পরা ছবি যখন শিক্ষিকাদের প্রতিবাদের হাতিয়ার

225

এক নতুন প্রতিবাদের স্রোতে গা ভাসিয়ে রাশিয়ান শিক্ষিকারা সুইমস্যুট পরে নিজেদের ছবি পোস্ট করছেন অনলাইনে | কিন্তু কোন ঘটনার প্রতিবাদে ?

সুইমস্যুট ও হাইহিল পরে তোলা ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করার অপরাধে ৩৮ বছরের রাশিয়ান সাহিত্যের স্কুলশিক্ষিকা তাতিয়ানা কুভশিনিকোভাকে সাইবেরিয়ান সিটি অফ বার্নাউলের এক স্কুলের কর্তৃপক্ষ বহিষ্কার করে | আঞ্চলিক সংবাদমাধ্যমকে তাতিয়ানা জানান তিনি তাঁর সুইমস্যুট পরা ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করার জন্য স্কুলের কোনও শিক্ষার্থীর অভিভাবক তাঁর বিরূদ্ধে স্কুলের প্রধানশিক্ষিকার কাছে অভিযোগ জানিয়েছিলেন | অভিযোগ পাওয়ার পর স্কুলের প্রধানশিক্ষিকা তাতিয়ানাকে জানান তিনি নাকি বারবণিতাদের মত পোশাক পরে যৌন আবেদন ছড়ানোর চেষ্টা করছেন | এই অভিযোগে তাতিয়ানাকে শিক্ষিকা পদ থেকে বহিষ্কার করা হয় |

এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর নীতিপুলিশির বিরূদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে উঠেপড়ে লাগেন অন্যান্য স্কুলশিক্ষিকারা | নিজেরাও নিজেদের সুইমস্যুট পরা ছবি অনলাইন সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে শুরু করেন একটি নতুন হ্যাশট্যাগ আন্দোলন – #”Teachers are people too.” অর্থাৎ শিক্ষিকারাও আদতে মানুষই | প্রায় ১৫‚০০০ জন শিক্ষিকা অনলাইনে নিজেদের সুইমস্যুট পরা ছবি পোস্ট করে হ্যাশট্যাগ দিয়ে প্রতিবাদ জানান | এই আন্দোলনের জেরে শেষ পর্যন্ত আঞ্চলিক শিক্ষামন্ত্রী এই ঘটনায় হস্তক্ষেপ করেন এবং তাতিয়ানাকে নতুন কাজের প্রস্তাব দেওয়া হয় | প্রতিবাদ যে মানুষের অধিকারের লড়াইকে জিতিয়ে দিতে পারে তা আবারও প্রমাণ করল এই ঘটনাটি |

Advertisements

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.