কামড় বসিয়েছে হাঙর‚ তবু চলছে ক্যামেরা

কামড় বসিয়েছে হাঙর‚ তবু চলছে ক্যামেরা

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ার ডুবুরি ২৬ বছরের লুক থম | নেপচুন দ্বীপের সংলগ্ন অঞ্চলে একটি দৈত্যাকার গ্রেট হোয়াইট শার্কের ছবি তুলতে মত্ত ছিলেন লুক | ছবি তোলার সময়ই হাঙরটি ক্রমশ তাঁর দিকে এগিয়ে আসতে থাকে | লুকের ক্যামেরা নৌকার প্রান্ত থেকে জলের মধ্যে ঝুলন্ত অবস্থায় ছিল | ৩‚০০০ পাউন্ড বা প্রায় ১‚৩০০ কিলোর এই দৈত্যাকার গ্রেট হোয়াইট শার্কের অসামান্য কিছু ছবি তুলতে যখন ব্যস্ত লুক তখনই হাঙরটি তাঁর চিকন সাদা ধারালো দাঁত বসিয়ে দেয় লুকের ক্যামেরার প্রান্তে | কোনও ভীতু মানুষ হলে হয়ত তখনই ভয়ে প্রাণ নিয়ে পালাতেন ওই জায়গা থেকে | কিন্তু লুক ছবি তোলা থামাননি | প্রাণ বিপন্ন করেও নিজের ছবি তোলার কাজ চালিয়ে যান তিনি | কারণ এত কাছ থেকে এমন প্রাণীর ছবি তোলার সুযোগ সবাই সবসময় পায় না |

ছবির দিকে তাকালেই বোঝা যাবে কেমন হিংস্রভাবে ক্যামেরাটিকে চিবিয়ে ফেলতে চাইছে হাঙরটি | তিনি জানান হাঙর একটি আশ্চর্য প্রাণী এবং তাদের সংরক্ষণ করার খুবই দরকার | নেপচুনের ২ টি দ্বীপ‚ যা উত্তর ও দক্ষিণ নেপচুন নামে পরিচিত সেখানেই গড়ে ১৬ ফুট লম্বা পুরুষ গ্রেট হোয়াইট শার্ক বাস করে | এরা ১৮ ফুট অবধি লম্বা হতে পারে |

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

Leave a Reply

Handpulled_Rikshaw_of_Kolkata

আমি যে রিসকাওয়ালা

ব্যস্তসমস্ত রাস্তার মধ্যে দিয়ে কাটিয়ে কাটিয়ে হেলেদুলে যেতে আমার ভালই লাগে। ছাপড়া আর মুঙ্গের জেলার বহু ভূমিহীন কৃষকের রিকশায় আমার ছোটবেলা কেটেছে। যে ছোট বেলায় আনন্দ মিশে আছে, যে ছোট-বড় বেলায় ওদের কষ্ট মিশে আছে, যে বড় বেলায় ওদের অনুপস্থিতির যন্ত্রণা মিশে আছে। থাকবেও চির দিন।