তৈমুরের জনপ্রিয়তায় একেবারেই খুশি নন শর্মিলা ঠাকুর!?

পাতৌদি পরিবারের নবাব পুত্র তৈমুর আলি খান।  বলিউডের দুই জনপ্রিয় তারকা সইফ আলি খান এবং করিনা কপূরের সন্তান।  জন্মানোর পর থেকে মাত্র দু’বছরের মধ্যে পেজ থ্রির সদস্য হয়ে উঠেছে তাই সে ও।  তবে এত অল্প বয়সে লাইমলাইটে আসার বিষয়টি কেমন চোখে দেখছেন শর্মিলা ঠাকুর?

সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে এই প্রসঙ্গে মুখ খুললেন তৈমুরের ঠাকুমা তথা বলিউডের বর্ষীয়ান অভিনেত্রী শর্মিলা ঠাকুর। অভিনেত্রীর কথায়, ‘তৈমুরের ছবি প্রায় প্রতিদিনই বেরোয়। এতে হয়তো আমার খুশি হওয়া উচিত। কিন্তু আমি পুরনো ফ্যাশনের। আমার মনে হয় বাচ্চাদের এত লাইমলাইটে আসা উচিত নয়। এখন তো সোশ্যাল মিডিয়ার যুগ। সোশ্যাল মিডিয়া ছাড়া কিছুই চলতে পারে না। আর আমি মনে করি, যদি কোনও কিছুকে হারিয়ে দেওয়া না যায় সেটার সঙ্গে যুক্ত হয়ে যাওয়াই ভাল।’

এই বিষয়টি খুব একটা পছন্দ নয় করিনা কপূরের বাবা রণধীর কপূরেরও।  করিনা অবশ্য মনে করেন ছোট থেকেই তৈমুরের এইসব বিষয়ে অভ্যস্ত হয়ে ওঠা উচিত |তবে একই সঙ্গে তৈমুরের ভবিষ্যতের জন্য করিনা এবং পতৌদি পরিবার চিন্তিত । সোশ্যাল মিডিয়ার যুগে তৈমুরের নামে রয়েছে বহু ফ্যান পেজ। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ার এই দৌরাত্বকে একেবারে সমর্থন করেন না তৈমুরের পরিবার।

প্রসঙ্গত, হেলো! ‘হল অফ ফেম অ্যাওয়ার্ড-২০১৯’ এ লাইফ টাইম অ্যাচিভমেন্ট পুরস্কার দেওয়া হয় ৭৪ বছর বয়সী বর্ষীয়ান অভিনেত্রী শর্মিলা ঠাকুরকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here