এই গরমে আম খান, তবে বুঝেশুনে!

গরমকালে ফলের মধ্যে আমের সঙ্গে আর কোনও কিছুরই তুলনা চলে না। আমকে বলা হয় ফলের রাজা। তা চাটনি হিসেবে টক আম হোক বা পাকা আম। আম ভালোবাসে না এমন মানুষও হাতে গোনা। কিন্তু জানেন কি বেশিমাত্রায় আম খেলে হতে পারে শরীরের মারাত্মক ক্ষতি। চিকিৎসকদের মতে, পাকা আম খাওয়া ভালো তবে খুব বেশি নয়। পাকা আমে রয়েছে ভিটামিন সি, ভিটামিন বি, থায়ামিন, রিবোফ্লাভিন, ভিটামিন এ বা বিটা ক্যারোটিন। এরসঙ্গে রয়েছে উচ্চমাত্রার শর্করা, কার্বোহাইড্রেড ও গ্লাইসেমিক।

চিকিৎসকদের মতে, যারা অ্যাজমার সমস্যায় ভুগছেন তারা কম খান আম। কিডনির সমস্যা যাদের রয়েছে তাদের পক্ষেও বেশি আম খাওয়া উচিত নয়। পাকা আমে চিনির পরিমাণ বেশি থাকার ফলেই শরীর খারাপ হওয়ার সম্ভবনা বেড়ে যায়। চিকিৎসকের কথায়, যাদের ডায়াবেটিস রয়েছে, তারা একেবারেই দূরে থাকুন আমের থেকে। কেননা রক্তে গ্লুকোজের পরিমাণ বাড়িয়ে শরীরের ক্ষতি করতে পারে।

পাকা আম অতিরিক্ত খেলে ওজন বেড়ে যায়। সেই সঙ্গে বৃদ্ধি পায় রক্তে শর্করার পরিমাণও। আমের আরও উপাদান হচ্ছে, ফিটোকেমিকেল কম্পাউন্ড তথা গ্যালিক অ্যাসিড, ম্যাঙ্গফেরিন, কোয়ার্নেটিন এবং টেনিন জাতীয় উপাদান। এ উপাদানগুলোও শরীরের পক্ষে ক্ষতিকর।
আজকাল বহু আমই কৃত্রিমভাবে পাকানো হয়। ক্যালশিয়াম কার্বাইড ব্যবহার করা হয় আম পাকাতে। এই রাসায়নিকগুলি ব্যবহারের ফলে শরীরে বিভিন্ন ধরনের প্রভাব পড়তে পারে। এর থেকে শরীরে ক্লান্তি, অবশবোধ করা ইত্যাদি সমস্যা দেখা দিতে পারে। শুধু তাই নয়, এই সব রাসায়নিক ব্যবহার করার ফলে ত্বকেরও নানান সমস্যা দেখা দিতে পারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here