উৎসব প্রাণঢালা‚ তবু এই কটা দিন স্বাস্থ্যের দিকেও নজর রাখুন

উৎসব প্রাণঢালা‚ তবু এই কটা দিন স্বাস্থ্যের দিকেও নজর রাখুন

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

দুর্গাপুজো মানেই নতুন জামা‚ প্যান্ডেল হপিং আর জমিয়ে খাওদাওয়া | এই সময় স্বাস্থ্য সচেতন ব্যক্তিরাও কিন্তু মিষ্টি এবং ভাজাভুজির হাতছানি এড়াতে পারেন না | তাই পুজোর পর নিজের ওজন করাতে গিয়ে যদি দেখেন যে আগের থেকে বেশ কিছুটা ওজন বেড়ে গেছে তাহলে আশ্চর্য হবেন না | এছাড়াও পুজোর সময় হাবিজাবি খেয়ে অনেকের শরীরও খারাপ হয় | তাই আগে থেকে সাবধান হন | আজকে রইলো  সহজ কিছু টিপস যা মেনে চললে শরীরও ঠিক থাকবে এবং এক্সট্রা ওজনও বাড়বে না |

) এইসময় আত্মীয়স্বজনদের জোর করে খাওয়ানোর প্রবণতা বেড়ে যায় | জোর করে কিন্তু একদম খাবেন না | ঠিক যতটা পারবেন তার বেশি না খাওয়াই ভালো | তবে খুব জোর করলে ওঁদের মন রাখতে অল্প একটু খাবার তুলে নিন |

) যতটা পারবেন ভাজা খাবার বা ভাজা মিষ্টি এড়িয়ে চলুন | জাঙ্ক ফুড যেমন বার্গার‚ ফ্রেঞ্চ ফ্রাইজ‚ কোল্ড ড্রিংকস যতটা পারবেন বাদ দিন | আজকাল স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখে অনেক লো ক্যালোরি মিষ্টি পাওয়া যায় তাই খেতে পারেন | তবে আর্টিফিসিয়াল সুইটনার দেওয়া ডেসার্ট এড়িয়ে চলুন |

) উৎসবের সময় বাড়িতে বিভিন্ন রকমের পদ রান্না হয় | বা বাইরেও খেতে যাই আমরা | খাবার সময় অল্প পরিমাণে খাবার খান | সঙ্গে ফল বা লো ক্যালোরি মিল্ক শেক রাখুন | কারও বাড়িতে নিমন্ত্রণ থাকলে বাড়ি থেকে অল্প পরিমাণে স্বাস্থ্যকর খাবার খেয়ে বেরোন |

) পুজোর কটা দিন ফুচকা‚ চাট বা বেশি ঝাল‚ মশলাদার খাবার এড়িয়ে চলুন বা কম পরিমাণে খান |

) দিনে অন্তত ৩০ মিনিট অবশ্যই ব্যায়াম করুন | বন্ধুদের সঙ্গে একজায়গায় বসে না থেকে হাঁটাহাটি করুন | যতটা পারবেন পায়ে হেঁটে ঠাকুর দেখুন |

) প্রচুর পরিমাণে জল পান করুন | ঠাকুর দেখতে বেরোনোর সময় সঙ্গে জলের বোতল রাখতে ভুলবেন না |

) খালি পেটে মদ্যপান করবেন না | বাইরে বেরোনোর থাকলে অল্প পরিমাণে মদ্যপান করুন | বন্ধুদের চাপে পড়ে প্রচুর পরিমাণে মদ খাবেন না |

) দুপুরে বা রাতে অবশ্যই নিজের ডায়েটে কিছু সব্জি রাখুন | কারণ সব্জিতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন‚ অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট‚ নিউট্রিয়েন্টস এবং ফাইবার থাকে যা আপনাকে এই অনিয়মের সময় সুস্থ রাখবে |

) ঢাক বাজানো বা ধুনুচি নাচে অংশগ্রহণ করুন | এতে আনন্দও হবে সঙ্গে প্রচুর পরিমাণে ক্যালোরিও বার্ন হবে |

১০) মনে রাখবেন তেলে ভাজা কোন খাবারের থেকে বেকড খাবার কিন্তু অনেক বেশি স্বাস্থ্যকর |

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

Leave a Reply

Handpulled_Rikshaw_of_Kolkata

আমি যে রিসকাওয়ালা

ব্যস্তসমস্ত রাস্তার মধ্যে দিয়ে কাটিয়ে কাটিয়ে হেলেদুলে যেতে আমার ভালই লাগে। ছাপড়া আর মুঙ্গের জেলার বহু ভূমিহীন কৃষকের রিকশায় আমার ছোটবেলা কেটেছে। যে ছোট বেলায় আনন্দ মিশে আছে, যে ছোট-বড় বেলায় ওদের কষ্ট মিশে আছে, যে বড় বেলায় ওদের অনুপস্থিতির যন্ত্রণা মিশে আছে। থাকবেও চির দিন।