মুখে বলার সাহস ছিল না‚ কাগজে লিখে বাবাকে অভিনেতা হওয়ার ইচ্ছার কথা জানিয়েছিলেন অক্ষয় কুমার

মুখে বলার সাহস ছিল না‚ কাগজে লিখে বাবাকে অভিনেতা হওয়ার ইচ্ছার কথা জানিয়েছিলেন অক্ষয় কুমার

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

সেলিব্রিটি চ্যাট শো বললেই প্রথমেই যে নামটা উঠে আসে তা হল ‘কফি উইথ করণ’ | এছাড়াও ‘রঁদেভ্যু উইথ সিমি গারেওয়াল’ ও বিখ্যাত হয়েছিল | আরও একটা সেলিব্রিটি চ্যাট শো ও কিন্তু বেশ জনপ্রিয় হয়েছিল | সেটা হলো ফারুক শেখ সঞ্চালিত ‘জিনা ইসি কা নাম হ্যায়’ | ১০০ এপিসোডের এই চ্যাট শোতে তারকারা এসে তাঁদের জীবনে বহু অজানা ঘটনা ও নানা খুঁটিনাটি সম্পর্কে আলোচনা করেছেন | তাঁদের মধ্যে একজন ছিলেন অক্ষয় কুমার | ওঁর সঙ্গে সেদিন উপস্থিত ছিলেন ওঁর বোন অলকাও | এখানেই জানা যায় সপ্তম শ্রেণীতে পড়ার সময় প্রথমবার অক্ষয় অভিনেতা হওয়ার ইচ্ছা প্রাকাশ করেছিলেন, ওঁর বাবার কাছে |

অলকার কথায় ‘দাদা ছোট থেকেই অভিনেতা হতে চেয়েছিল | কিন্তু সাহস করে তা কোনওদিন বাবাকে বলতে পারেনি | সপ্তম শ্রেণীতে পড়ার সময় পরীক্ষায় খুব কম নম্বর পেয়েছিল | বাবা প্রচন্ড রেগে গিয়ে ওকে জিজ্ঞেস করল পড়াশোনার বদলে কী করতে চায় ও | উত্তরে অক্ষয় বলেছিল, ও যা করতে চায় সেটা ও মুখে বলতে পারবে না | তাই বাবা ওকে একটা কাগজ আর পেন্সিল দিয়ে বলল লিখে জানাতে | অক্ষয় তাতে লিখেছিল ‘অভিনতা’ |’

অক্ষয়ের অভিনেতা হওয়ার ইচ্ছার কথা জানার পর ওঁর বাবা ওঁকে বুঝিয়েছিলেন ভালো করে পড়াশোনা না করলে সে কোনওদিনই অভিনেতা হতে পারবে না | অক্ষয় আরও জানান ওই সময়তে পকেট মানি জমিয়ে সেই টাকা দিয়ে স্টুডিওতে গিয়ে একটা ছবিও তুলেছিলেন উনি | ওঁর মনে হয়েছিল সেই ছবি বিভিন্ন মডেলিং এজেন্সিতে পাঠালেই তাঁরা তাকে ডাকবেন | কিন্তু সেই আশা কোনওদিন পূরণ হয়নি অক্ষয়ের |

অক্ষয়ের আসল নাম রাজীব ভাটিয়া | ওঁর জন্ম দিল্লিতে কিন্তু উনি মুম্বইয়ের ডন বোস্কো স্কুলের ছাত্র ছিলেন | অক্ষয় শো চলাকালীন জানান স্কুলে পড়ার সময় দশজন বন্ধু মিলে একটা গ্রুপ তৈরি করেছিলেন যার নাম রেখেছিলেন ‘ব্লাডি টেন’ | সবাই নাকি ওঁদের এই গ্রুপকে ভয় পেত | আর এর জন্য বেশ গর্বিত ছিল গ্রুপের সদস্যারা |

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

Leave a Reply

Handpulled_Rikshaw_of_Kolkata

আমি যে রিসকাওয়ালা

ব্যস্তসমস্ত রাস্তার মধ্যে দিয়ে কাটিয়ে কাটিয়ে হেলেদুলে যেতে আমার ভালই লাগে। ছাপড়া আর মুঙ্গের জেলার বহু ভূমিহীন কৃষকের রিকশায় আমার ছোটবেলা কেটেছে। যে ছোট বেলায় আনন্দ মিশে আছে, যে ছোট-বড় বেলায় ওদের কষ্ট মিশে আছে, যে বড় বেলায় ওদের অনুপস্থিতির যন্ত্রণা মিশে আছে। থাকবেও চির দিন।