মেয়েদের কপালে আর সিঁথিতে সিঁদুর বাড়ায় যৌন কামনা?

958

সব সংস্কারের পিছনেই কি লুকিয়ে থাকে কোনও কার্যকারণ সম্পর্ক? নইলে হিন্দু ধর্মের বহু জিনিস এখন আধুনিক জীবনে বাতিল বা ব্রাত্য | যাদের পিছনে এক সময়ে লুকিয়ে ছিল কোনও বাস্তব কারণ | আজ সমাজ পাল্টে যাওয়ায় সেগুলো কোথাও কুসংস্কারে, বা কোথাও অর্থহীন বলে চিহ্নিত হয়েছে | কোথাও আবার লোকের মন থেকে বিস্মৃত হয়েছে নেপথ্যের কার্যকারণ |

নদীতে পয়সা দেওয়া-

একসময় পয়সা বা মুদ্রা তৈরির প্রধান উপকরণ ছিল তামা | প্রাচীন কাল থেকেই হিন্দু সভ্যতা বুঝেছিল মানব দেহে তামার প্রয়োজনীয়তা আছে | আর তখন পানীয় জলের অন্যতম উৎস ছিল নদী| তাই হয়তো, শুরু হয়েছিল জলে পয়সা ফেলার রেওয়াজ | যাতে পানীয় জলের সঙ্গে মিশে যয়া তামা| নিয়মটা ধরে রাখতে জুড়ে দেওয়া হয়েছিল ধর্মীয় তকমা |

হাত জোড় করে নমস্কার-

জড়িয়ে ধরা বা হাগ করা নয় | হিন্দু ধর্মের সনাতনী রীতি হল, জোড়হাতে নমস্কার | এর প্রধন কারণ হল, দু হাত জড়ো করে প্রণাম করলে নির্দিষ্ট প্রেশার পয়েন্টে চাপ লাগে | ফলে আলাপ করা সময় উল্টোদিকের লোককে অনেকদিন মনে থাকে| এবং দ্বিতীয় কারণ হল, জড়িয়ে না ধরলে অনেকটাই কমে যায় রোগ জীবাণু ছড়াবার আশঙ্কা|

পায়ের আঙটি-

বিবাহিত মেয়েদের পায়ের মধ্যমায় আংটি পরা রীতি | এখনকার ফ্যাশনে যাক বলা হয় ‘টো-রিং’| বাঁ পায়ের মধ্যমা থেকে একটি নার্ভ যুক্ত ইউটেরাসের সঙ্গে | বলা হয়, এই আঙুলে রুপোর আঙটি পরলে মহিলাদের গর্ভধারণে সমস্যা হয় না|

কপালে টিপ-

ভ্রূ যুগলের মাঝের অংশকে প্রাচীন কাল থেকেই দেহের গুরুত্বপূর্ণ অংশ বলে ধরা হয় | বলা হয়, এখানে আঙুল দিয়ে চেপে তিলক বা টিপ পরলে মুখমণ্ডলে রক্ত সঞ্চালন ঠিক থাকে |

মাথায় টিকি-

মস্তিষ্কের গুরুত্বপূর্ণ অংশকে বাঁচিয়ে রখার জন্যই এর প্রচলন| যাতে অধ্যয়ন কালে প্রখর থাকে স্মৃতি শক্তি |

মেহেন্দি-

মেহেন্দির ঠান্ডা স্পর্শ সাহায্য করে শরীরকে শীতল রাখতে | তাই বিয়ের টেনশন এবং স্ট্রেসকে বশে রাখতে কনে ( এবং বরেরও) হাতে-পায়ে মেহেন্দি দেওয়া হয় |

মাটিতে বসে খাওয়া-

‘সুখাসন’ করে বসে খাওয়াটা প্রাচীন হিন্দু রীতি| চেয়ারে বসে পা ঝুলিয়ে খাওয়ার থেকে এইভাবে বসে খেলে হজম ভাল করে হয় |

কপালে সিঁদুর-

সিঁদুরে পারদ থাকে| এতে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রিত থাকে | বাড়ে যৌন কামনাও |

তুলসি দাঁতে কাটা নয়-

পুরাণ অনুযায়ী তুলসি হল বিষ্ণুর স্ত্রী| তাই তাঁকে শ্রদ্ধা জানাতে তুলসিকে দাঁতে কাটা হয় না | আর একটা কারণ হল, তুলসি পাতায় প্রচুর পারদ থাকে | পারদ দাঁতের জন্য ক্ষতিকারক | তাই তুলসি পাতা দাঁতে না কেটে গিলে নিতে হয় |

কান বিঁধানো-

প্রাচীন হিন্দু চিকিৎসা শাস্ত্র বলে, কানের লতিতে ছিদ্র করা হলে বুদ্ধি বাড়ে| চিন্তাশক্তি, সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষমতা তীব্র হয় | বাক সংযম আসে |তাই, অনেক সম্প্রদায়ে ছেলেদেরও কানের লতিতে ছিদ্র করে দেওয়া হয়|

Advertisements

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.