মাত্রাহীন Soft Drinks-এ অকালমৃত্য়ু

29

Soft Drink খেতে ভালবাসতেন Natasha Harris | ক্রমে এই প্রেম তীব্র হয়্ | শেষে প্রেম নেশার রূপ ধারণ করে | একসময় এমন অবস্থা হয়, নিউজিল্য়ান্ডের Invercargill শহরের এই বাসিন্দার রোজ ১০ লিটার ঠান্ডা পানীয় চাই-ই চাই | এবং ৩০ বছর বয়সে অকালমৃত্য়ুর দিন পর্যন্ত প্রত্য়েকদিন ১০ লিটার বা ২.২ গ্য়ালন করে সফ্ট ড্রিঙ্ক খেয়ে গেছেন তিনি |

ধীরে ধীরে তাঁ্র শরীরে বাসা বাঁ্ধে অসুখ্ | একাধিক্ | সেগুলোর বিরুদ্ধে যুঝতে যুঝতে একদিন শেষ হয় লড়াই | মৃত্য়ু হয় cardiac arrhythmia-এ |

চিকিৎ্সকরা মনে করছেন অত্য়ধিক পরিমাণে soft drink তাঁ্র মৃত্য়ুর অন্য়তম কারণ্ | এর ফলে তাঁ্র শরীরে metabolic imbalances হয়্ | যার চূড়ান্ত পরিণতি arrhythmia |

Pathologistরা জানাচ্ছেন, নাতাশার লিভার বড় হয়ে গিয়েছিল | কিন্তু তিনি মদ্য়পান করতেন না | তাই ডাক্তারদের ধারনা, বেশিমাত্রায় ঠান্ডা পানীয় খাওয়ার ফলে দেহে বাড়তে থাকে শর্করার পরিমাণ্ | কমে যায় রক্তের পটাশিয়ামের মাত্রা | যকৃতে বাড়তে থাকে fatty deposit | ফলে দুর্বল হয়ে যায় হৃদযন্ত্র আর লিভার্ |

তাঁ্র বাড়ির লোক জানিয়েছেন, কোল্ড ড্রিঙ্কস না পেলে পাগলের মতো করতেন নাতাশা | যতক্সণ জেগে থাকতেন চুমুক দিতেন সফ্ট ড্রিঙ্কসের ক্য়ানে | এর প্রভাব এতটাই তীব্র ছিল, নাতাশার সব দাঁ্ত পচে নষ্ট হয়ে যায়্ | এমনকী তাঁ্র আট সন্তানের মধ্য়ে একজনের জন্মগত ত্রুটিও দেখা দেয়্ | শিশুটির যে দাঁ্ত গজিয়েছে সেগুলো সব কালো | অর্থাৎ তার দাঁ্তে কোনও এনামেল নেই |

ডাক্তারদের মতে,ঠান্ডা পানীয় প্রস্তুতকারীদের উচিত সতর্কীকরণ লিখে দেওয়া | যাতে এর বহুল ব্য়বহারের ভয়াবহতা থেকে সতর্ক থাকতে পারেন সবাই |

কিন্তু soft drinks নির্মাতারা এই কথায় বেজায় চটেছে | তাদের বক্তব্য়, নাতাশার মৃত্য়ুর অন্য়তম কারণ যে অত্য়ধিক ঠান্ডা পানীয়, তার কোনও নির্দিষ্ট প্রমাণ নেই | বরং তাদের দাবি, অন্য়ান্য় খাবার এবং life style factor-এর জন্য়ই নাতাশার মৃত্য়ু হয়েছে |

Advertisements

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.