জন্মদিনে আরও ভাল করে চিনে নেওয়া যাক আলিয়া ভট্টকে

বলিউডে আপাতত সবথেকে জনপ্রিয়,চর্চিত এবং সেরা অভিনেত্রীদের মধ্যে শীর্ষে রয়েছেন আলিয়া ভট্ট। বি-টাউনে ডেব্যু করেছেন ২০১২ সালে। তবে মাত্র ৭ বছরে অপরিসীম সাফল্য এসেছে তাঁর ঝুলিতে। জন্ম ১৯৯৩ সালের ১৫ মার্চ। বলিউড পরিচালক মহেশ ভট্ট ও অভিনেত্রী সোনি রাজদানের একমাত্র কন্যা তিনি। এসব হয়তো অনেকেরই জানা । তবে জানা নেই এমন কিছু কথা যা বলিউডের ব্যস্ততম সুন্দরী অভিনেত্রীর সম্পর্কে ধারণা পাল্টে দিতে পারে।

১।

২০১২ সালে করণ জোহরের হাত ধরে ‘স্টুডেন্ট অফ দ্য ইয়ার’ ছবির মাধ্যমে বলিউডে ডেব্যু হয় আলিয়ার। এতদিন এটি সবাই জানতেন। কিন্তু জানেন কি,অনেক  ছোট বয়সে প্রীতি জিন্টা অভিনীত ‘সংঘর্ষ’ ছবিতে প্রীতির ছোটবেলার চরিত্রে প্রথম কাজ করেন আলিয়া একজন শিশু শিল্পী হিসেবে।

২ ।

বলিউড অভিনেতা ইমরান হাশমি এবং পরিচালক মোহিত সুরির বোন হন আলিয়া ভট্ট।

৩।

তারকার ঘরে জন্ম হলেও ‘স্টুডেন্ট অফ দ্য ইয়ার’-এর জন্য ৪০০ জন মেয়েদের সঙ্গে অডিশন দিয়েছিলেন আলিয়া।

৪।

বলিউডে নায়িকা হতে গেলে লাগে পারফেক্ট বডি। আর বি-টাউনে এনট্রির আগে আলিয়ার ওজন বাকি নায়িকাদের থেকে ছিল অনেক বেশি। তাই ছবির সঙ্গে মানানশই হতে তিন মাসে মোট ১৬ কেজি ওজন কমিয়েছিলেন অভিনেত্রী।

৫।

আলিয়া যে ভাল অভিনয় করেন সেটি সবাই জানেন,ভাল গানও গান। কিন্তু জানেন কি,খুব ভাল আঁকতেও পারেন আলিয়া।

৬।

শুনলে অবাক হবেন, আলিয়া ভট্ট বরাবর ব্যবহার করতে ভালবাসেন ছেলেদের পারফিউম।

৭।

বলিউডে করিনা কপূরের মস্ত বড় ভক্ত আলিয়া। এমনকি ডেব্যু ছবিতে করিনার ‘পু’ চরিত্রের আদলেই শনায়ার ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন আলিয়া।

৮।

খুব ভাল গান করেন আলিয়া ভট্ট তা আমরা সকলে জানি। তবে জানেন কি এই গান তিনি শিখেছেন এ আর রহমান মিউজিক স্কুল থেকে। ‘হাইওয়ে’-র একটি গানের জন্য সেই স্কুলে গিয়ে গান রেকর্ড করেছিলেন অভিনেত্রী।

৯।

পশুদের প্রতি আলাদাই ভাললাগা রয়েছে তাঁর। বাড়িতে একটি পোশ্য তো রয়েছে,তার পাশাপাশি ‘পিউপল ফর দ্য এথিকল ট্রিটমেন্ট অফ অ্যানিমেল’ ওরফে পেটার সদস্যপদেও রয়েছেন আলিয়া।

১০।

খেতে খুব ভালবাসেন আলিয়া। তাঁর প্রিয় খাবারের তালিকায় যেমন রয়েছে ফ্রেঞ্চ ফ্রাই,কোল্ড ড্রিঙ্কস,তেমন অন্যদিকে রয়েছে,ধোসা ইডলি এবং দই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here