Tags Posts tagged with "টলিউড"

টলিউড

অভিনয়ের জগতে বেশ নামডাক রয়েছে তাঁর। জাতীয় পুরস্কারে পুরস্কৃতও হয়েছেন একবার। বড়পর্দার পাশাপাশি টেলিভিশনেও জাঁকিয়ে বসেছেন তিনি। কিন্তু সেসব ছেড়ে আবার গান কেন? 

হ্যাঁ, এমনটাই দাবি নেটিজেনদের। সম্প্রতি একটি অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে দর্শকদের উদ্দেশ্যে গান ধরলেন অভিনেত্রী। তাও আবার যে সে গান নয়, রবি ঠাকুরের ‘বড় আশা করে এসেছি গো কাছে ডেকে লও’। অভিনেত্রী হিসেবে এক নম্বরে থাকলেও গায়িকা হিসেবে যে একেবারেই নন,তা প্রমাণ দিয়েছে এই গানটি। আর তারপর থেকেই নেটিজেনদের খপ্পরে পড়তে হয়েছে ইন্দ্রাণী হালদারকে।  

পর্দায় হোক বা পর্দার বাইরে, ইদানিং নায়ক-নায়িকাদের গান গাওয়াটা যেন একটা ট্রেন্ড হয়ে দাঁড়িয়েছে ৷ অনেকেই সুন্দর গান গাইতে সক্ষম ৷ আবার অনেকেই নন ৷ এর আগে রানি রাসমনী খ্যাত অভিনেত্রী দ্বিতীপ্রিয়া রায়ের গান নিয়ে বেশ শোরগোল পড়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়। এবার নতুন এক গায়িকা পেয়ে তাঁর গানও ভাইরাল হয় নেট দুনিয়ায়। সাধারণ মানুষ থেকে তারকা, এই চর্চায় সামিল অনেকেই ৷ গানটি সোশ্যাল মিডিয়ায় আসার পর থেকেই শুরু হয় কমেন্টের বন্যা ৷ তবে অভিনেত্রী বিদীপ্তা চক্রবর্তী ও সুদিপ্তা চক্রবর্তীর পোস্ট নজরে আসে বিশেষভাবে ৷ নাম উল্লেখ না করেই তাঁরা লিখেছেন যে জনসমক্ষে এভাবে রবীন্দ্রসঙ্গীত নিয়ে ছ্যাবলামো বন্ধ হোক! একইভাবে শিল্পী চৈতালী দাশগুপ্তও বিরক্তি প্রকাশ করেছেন ইন্দ্রাণীর এই পারফরম্যান্সে ৷

টলিউডে কিছুদিন আগেই ড্রিম ওয়েডিং সারলেন অভিনেত্রী শুভশ্রী গাঙ্গুলী। বর হিসেবে কোন নায়ককে নয়, পরিচালক রাজ চক্রবর্তীকেই পছন্দ তাঁর। তাই বছরখানেকের প্রেমের পর একেবারে বিয়ের পিঁড়িতে নিয়ে গেলেন রাজকে। স্বাভাবিকভাবেই এবারের ভ্যালেন্টাইন্স ডেও বাকি বছরের থেকে কিছুটা স্পেশল এই জুটির। তবে সেই আশায় জল ঢেলে দিলেন রাজ নিজেই। বিয়ের পর প্রথম ভ্যালেনটাইন্স ডে তেও পাশে থাকলেন না বৌ-এর। 

এবার আসা যাক আসল কারণে। জানা যাচ্ছে রাজ চক্রবর্তীর নতুন ছবি ‘শেষ থেকে শুরু’-এর শুটিং-এ আপাতত ব্যস্ত পরিচালক। তাই সেই কাজেই পাড়ি দিলেন লন্ডনে। ছবিটির প্রযোজনার দায়িত্বে রয়েছেন টলি তারকা জিত। পাশাপাশি প্রধান চরিত্রেও দেখা যাবে তাঁকেই। তবে শুধু রাজই নয়,সঙ্গে গিয়েছেন বাকি কলাকুশলীরাও। জাননি শুধু তাঁর স্ত্রী শুভশ্রী। 

View this post on Instagram

Kaya bolti tu… @subhashreeganguly_real

A post shared by Raj Chakraborty (@rajchoco) on

শুটিং-এর কাজে বাইরে থাকলেও বৌ-কে যে খুবই মিস করছেন রাজ তা বোঝা যাচ্ছে তাঁর ইনস্টাগ্রাম পোস্ট দেখেই। তাই হয়তো লন্ডনের মাটি ছোঁয়ার আগে থেকেই প্রতিটি মুহূর্তের ছবি পোস্ট আপডেট করছেন তাঁর ইনস্টাগ্রামে। সেখানেই রাজ নিজের একটি ছবি পোস্ট করে শুভশ্রীর উদ্দেশে লিখেছেন ‘কেয়া বলতি তু’।

বলিউডের পাশাপাশি #MeeToo এবার টলিউডেও। অভিযোগ ‘রসগোল্লা’-ছবির পরিচালক পাভেলের বিরুদ্ধে। এবং সেই খবরটি আপাতত ছড়িয়ে পরেছে গোটা টলি পাড়া জুড়ে।

সম্প্রতি অভিনেত্রী অনুপমা চক্রবর্তী একটি ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে পাভেলের বিরুদ্ধে যৌন নিগ্রহের অভিযোগ আনেন। সেই পোস্ট অনুযায়ী,বেশ কয়েকবছর আগে অডিশনের সূত্রে আলাপ হয় পাভেলের সঙ্গে, রসগোল্লা ছবির জন্য অভিনেতা অভিনেত্রীর খোঁজ চলছে তখন। সেই সময়ই তাঁকে, অনুরূপাকে পছন্দ হয় পাভেলের। এরপর প্রায়ই চিত্রনাট্য নিয়ে বসতেন তাঁরা, পাভেলের নাকতলার বাড়িতেও যেতেন অভিনেত্রী। তিনি লিখছেন, “আমি তখন হতাশায় ভুগছি, তেল মাখা চুল,কুর্তি আর মেকআপ ছাড়াই পৌঁছে যাই ওঁর  বাড়িতে। সেখানেই যৌন হেনস্থার শিকার হতে হয়। ওর আচরণে স্পষ্টই বোঝা গিয়েছিল আমাকে গরীব ঘরের মেয়ে মনে করেছিল পাভেল।” অভিনেত্রী আরও লেখেন ‘একদিন হঠাৎই পেছন থেকে জড়িয়ে ধরে আমায় চুমু খেতে শুরু করে, আমি কোনওক্রমে নিজেকে ছাড়িয়ে নিয়ে পালিয়ে আসি সেখান থেকে।”

তবে এই অভিযোগ সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছেন পাভেল। তাঁর দাবি ২০১৬ সালে এইধরনের কোন ঘটনা ঘটে থাকলে আজকে এতদিন পর সেই কথা কেন বলছেন অভিনেত্রী। এদিকে অভিনেত্রীর কথায় নিজেকে টলিউডে কিছুটা প্রতিষ্ঠিত করতে চেয়েছিলেন আগে। নাহলে তাঁর কোন কথারই গুরুত্ব দেওয়া হত না বলে জানান অভিনেত্রী।

প্রসঙ্গত,সম্প্রতি বিরসা দাশগুপ্তর ছবি’ ক্রিসক্রস’-এ অভিনয় করেছেন অনুপমা চক্রবর্তী। এছাড়াও জি ফাইভের ‘কালী’ সহ আড্ডা টাইমস-এর সিরিজ ‘ইন দেয়ার লাইফ’-এ দেখা যাবে এই অভিনেত্রীকে। অন্যদিকে ‘বাবার নাম গান্ধীজি’ ছবি দিয়ে টলিউডে পা রাখলেও ‘রসগোল্লা’ ছবি পরিচালনার পরই জনপ্রিয় হন পাভেল।

প্রথম স্বামী বাংলা সিনেমা জগতের প্রচলিত পরিচালক রাজীব বিশ্বাস। ২০০৩ সালে খুব অল্প বয়সেই তাঁর সঙ্গে বিয়ে করেন টলি অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। এরপর বেশ কয়েক বছর গুছিয়ে সংসারও করেন তাঁরা। এই পক্ষেরই প্রথম সন্তান ঝিনুক। কিন্তু ব্যক্তিগত মিল না থাকায় সেই বন্ধন থেকে বেড়িয়ে এসে ২০১৭ সালে মুম্বই-এর মডেল কৃষ্ণা বিরাজের সঙ্গে দ্বিতীয়বার বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন অভিনেত্রী। কিন্তু ১ বছরের মাথায় সেই গাঁটছড়াও খুলে ফেলেন তিনি।

টলিউড হোক বা বলিউড, অভিনেতা অভিনেত্রীদের ব্যক্তিগত কান্ড কারখানায় বরাবরই নজর থাকে সকলের। আর ইন্টারনেটের যুগে তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ করে ফেলাটাও খুব একটা মুশকিলের নয়। আর সেই সুবিধাই ভাল মত উপভোগ করেন নেটিজেনরা। তাই শ্রাবন্তীর জীবনই বা বাদ যাবেন কেন?

শ্রাবন্তীর দ্বিতীয় স্বামীর সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদের খবর ইতিমধ্যেই ছড়িয়ে পড়েছে সর্বত্র। এমনকি বিবাহিত জীবনের এই চড়াই-উতরাই যে বেশ ভাল মতই তাঁর কাজে বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছিল তাও জানান অভিনেত্রী। এবার নেটিজেনরা সেই সুযোগ পেয়ে প্রেম, বিচ্ছেদ, বিবাহ নিয়ে পরামর্শ দিয়ে বসলেন শ্রাবন্তীকে। সম্প্রতি নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে হলুদ শাড়ি পরা একটি ছবি পোস্ট করেছেন শ্রাবন্তী ৷ ছবিতে দেখা যাচ্ছে নায়িকার সিঁথিতে সিঁদুর, গলায় মঙ্গলসূত্র ৷ তবে সত্যিকারের নয়, ছবিটি নতুন সিনেমা ‘হুল্লোড়’-এর শুটিংয়ের সময়ে তোলা ৷ কিন্তু বেশিরভাগ মানুষই বিষয়টা বুঝতে না পেরেই কটূ মন্তব্য করে বসেন তাঁকে৷ ফেসবুকে ওই ছবির কমেন্ট বক্সে এক ব্যক্তি লেখেন, “আপনি আর বিবাহ না করে সন্তানের  মঙ্গলের জন্য তাকে নিয়ে পিতার কাছে ফিরে যান….. অথবা সন্তানকে নিয়ে একা থাকুন…. হিন্দু সমাজে একটা নারীর বহু বিবাহ বে-মানান…. প্রয়োজনে পরকিয়া করুন ৷”

যদিও এইসকল বিষয় বেশি মাথা ঘামাতে রাজি নন অভিনেত্রী। তাই পাল্টা কোন উত্তর দেননি উনি । আপাতত নিজের কাজে মন দিয়েছেন শ্রাবন্তী। কিন্তু জানা গিয়েছে ফের প্রেমে পড়েছেন তিনি। সম্ভবত এই নায়িকার জীবনে নতুন নায়ক রোশন নামের একজন যিনি একজন এয়ারলাইনসের কেবিন ক্রিউ হেড।

দক্ষিণভারতের ভগবান বলা হয় রজনীকান্তকে। কারণ একজন সফল অভিনেতার পাশাপাশি মহান মানুষও তিনি। মানুষের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে যিনি দুবার ভাবেন না। আজ তাঁর পরিবারেই খুশির দিন। ফের বিয়ের মরশুম রজনীকান্তের পরিবারে।

আগামী ১১ ফেব্রুয়ারি বসবে রজনীকান্তের কন্যা সৌন্দর্যর বিয়ের আসর। ৯ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হবে বিয়ের যাবতীয় অনুষ্ঠান। চলতি বছর ফেব্রুয়ারি মাসে অভিনেতা, ব্যবসায়ী বিশাগান বানানগামুদি নামে এক ব্যবসায়ীর সঙ্গে এবার বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন রজনীকান্ত-কন্যা। জানা যাচ্ছে খুব আড়ম্বর করে নয়,হালকা মেজাজেই বিয়ে সেরে ফেলতে চান মেয়ে সৌন্দর্য। ঘনিষ্ট কিছু আত্মীয় পরিজন ও বন্ধুবান্ধবদের নিয়েই হবে এই অনুষ্ঠান। কিন্তু প্রশ্ন থেকেই যায় যে দক্ষিণের এত বড় একজন সুপারস্টাররের বিয়েতে এত অল্প ব্যবস্থা কেন?

তবে এটি প্রথমবার নয়, দ্বিতীয়বার গাঁটছড়া বাধতে চলেছেন সৌন্দর্য। এর আগে অশ্বিন রাজকুমারের সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল তাঁর। কিন্তু সেই বিয়ে সফল হয় নি।  দীর্ঘ ৭ বছর একসঙ্গে সংসার করেছিলেন তাঁরা। এমনকি সৌন্দর্য ও আশ্বিনের সন্তানও রয়েছে। নাম বেদ কৃষ্ণ। তবে ছাড়াছাড়ি হয়ে যাওয়ার পর সে এখন থাকে রজনীকান্তের পরিবারের সঙ্গেই। হয়তো দ্বিতীয় বিয়ে বলেই বেশী জাঁকজমক করতে চাইছেন না সৌন্দর্য !

রেসিপি

error: Content is protected !!