খুদে পড়ুয়ার মন ভাল করতে শিক্ষিকাও তার মতো ছোট করে চুল কাটালেন

281

ছোট্ট ছাত্রীর পাশে থাকতে নিজেরও চুল কেটে ফেললেন একজন শিক্ষিকা | টেক্সাসের ইউলিসের মিডর এলিমেন্টারি স্কুলের পক্ষ থেকে করা একটি ফেসবুক পোস্টে জানা যায় স্কুলের ছাত্রী ৫ বছরের প্রিসিলা পেরেজ নিজের চুল ছোট করে কেটে ফেলার কয়েকদিন পর থেকেই স্কুলে আসতে চাইছিল না | প্রিসিলা কেন স্কুলে আসতে চাইছে না সে বিষয়ে খোঁজ করে স্কুলের শিক্ষিকা শ্যানন গ্রিম জানতে পারেন যে ছোট করে চুল কেটে ফেলার জন্য প্রিসিলাকে নিয়ে তার ক্লাসের বন্ধুরা ইয়ার্কি করছে | কীভাবে এই সমস্যার সমাধান করা যায় ভাবতে ভাবতেই শ্যানন করে ফেলেন এক অভিনব সমাধান | পরদিন যখন শ্যানন স্কুলে আসেন তখন সবাই দেখে তিনিও প্রিসিলার মত ছোট করে চুল কেটে ফেলেছেন |

 শিক্ষিকার এই আচরণে ছোট্ট প্রিসিলা আবারও নিজের মনোবল ফিরে পায় | শ্যানন নিজের ও প্রিসিলার জন্য একইরকম হেয়ার বো কিনে আনেন | স্কুলের পক্ষ থেকে বাচ্চাদের অনুপ্রাণিত করতে ডিস্ট্রিক্ট স্টুডেন্ট অফ দ্যা মান্থ অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হয় | শ্যানন প্রিসিলার সাহসিকতাকে অনুপ্রাণিত করতে তার নাম সেই অ্যাওয়ার্ডের নমিনেশনেও দেন | এবং শেষে প্রিসিলা যখন এই অ্যাওয়ার্ডের মেডেলটি পায়‚ সে মেডেলটি তার শ্যানন ম্যাডামকে উৎসর্গ করে |

শ্যানন জানিয়েছেন ঘটনাটির ব্যাপারে জানার সঙ্গে সঙ্গেই তিনি জানতেন যে তাঁকে ঠিক কোন পদক্ষেপ নিতে হবে | যদিও বড় চুল কেটে ফেলার সিদ্ধান্ত নেওয়া তাঁর কাছে খুব একটা সহজ ছিল না‚ তাও তিনি মনে করেন তাঁকে এই কাজটি করতেই হবে | শুধুমাত্র প্রিসিলার মনের জোর বাড়ানোর জন্যেই নয়‚ তিনি আসলে ক্লাসের ছাত্রছাত্রীদের বোঝাতে চেয়েছিলেন ছেলেদের মত বা মেয়েদের মত বলে আলাদা করে কিছু হয় না | যাঁর যেমন ইচ্ছা সে তেমন করেই চুল রাখতে পারেন | ছাত্রী ও শিক্ষকের এই সুন্দর মেলবন্ধনের কথা স্কুলের পক্ষ থেকে ফেব্রুয়ারির ১৩ তারিখে ফেসবুকে পোস্ট করা হলে পোস্টটিতে ৫‚৬০০- রও বেশি রিঅ্যাকশন পড়ে | ১‚৪০০ বার শেয়ার করা হয় পোস্টটি | মানুষের মনে নিজেদের প্রিয় শিক্ষক শিক্ষিকার স্মৃতি জাগিয়ে তোলে এই ঘটনা |

Advertisements

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.