বাণিজ্যে স্নাতকোত্তর ডিগ্রিধারী শেষে ডেলিভারি বয় !

বিগত কয়েক বছরেই সরকারের ওঠাপড়া হয়েছে নানা ভাবে | সরকারের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে তাদের ক্ষমতায় থাকাকালীন কর্মসংস্থান বেড়েছে | প্রত্যেক সরকারই ক্ষমতায় থাকাকালীন কমবেশি এই কথাই বলে থাকে | কিন্তু এই পরিস্থিতিতেও সাধারণ মানুষের অবস্থাটি চোখের সামনে স্পষ্ট করে তুলে ধরল এই ফেসবুক পোস্টটি |

গত বুধবার ফেসবুকে কলকাতার শৌভিক দত্ত একটি পোস্ট করেন যা বহু মধ্যবিত্ত মানুষকেই ভাবতে বাধ্য করেছে | পোস্টে শৌভিক জানান যে এই প্রথম বার জোম্যাটো থেকে খাবার অর্ডার দেওয়ার জন্য তিনি অনুশোচনা করছেন | প্রত্যেক বারের মত জোম্যাটো থেকে খাবারের অর্ডার দিয়েছিলেন শৌভিক | কিন্তু ডেলিভারি করতে আসা মানুষটির বিবরণ দেখেই তিনি হতচকিত হয়ে পড়েন | তাঁর খাবার পৌঁছে দিতে আসা মীরজের বায়োতে লেখা ছিল মীরজ বাণিজ্যবিদ্যায় স্নাতকোত্তর | এই দেখে অবাক শৌভিক | তারপরে তিনি একটি কল পান | মীরজ তাঁকে জানান যে তিনি খাবার ডেলিভারি দিতে এসে গিয়েছেন তাঁর বাড়ির দরজায় | দরজা খুলে শৌভিক দেখেন হাসিমুখে দাঁড়িয়ে আছেন মীরজ |

খাবারের পার্সেলটি শৌভিকের হাতে দিয়ে বাণিজ্যবিদ্যায় স্নাতকোত্তর মীরজ শৌভিককে তাঁর রেটিং দিয়ে দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন | মীরজের সাথে কথা বলে শৌভিক জানতে পারেন কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মাস্টার্স অফ কমার্স ( এম কম ) এবং ফিন্যান্স বা ইনভেস্টমেন্ট ব্যাঙ্কিঙে পিডিজিএম ডিগ্রি রয়েছে মীরজের |

Probably the only time i regret ordering food from ZomatoIt was one of those usual checkouts ordering food,when i was…

Shouvik Dutta ಅವರಿಂದ ಈ ದಿನದಂದು ಪೋಸ್ಟ್ ಮಾಡಲಾಗಿದೆ ಬುಧವಾರ, ಫೆಬ್ರವರಿ 6, 2019



এর পরেই নিজের হতাশার কথা নিজের পোস্টে লিখেছেন শৌভিক | লিখেছেন যে দেখতেই পাওয়া যাচ্ছে আমাদের দেশের অবস্থাকে আমরা কোথায় নিয়ে গেছি | এ কেমন সময় যখন একজন স্নাতকোত্তর ডিগ্রিধারী মানুষকেও টাকা রোজগার করার জন্য বাড়ির দরজায় খাবারের ডেলিভারি দিয়ে যেতে হচ্ছে ! কর্মসংস্থানের প্রয়োজনীয়তার উপর গুরুত্ব দিতে চেয়ে শৌভিক লিখেছেন এইভাবে চলতে পারে না‚ দেশের অবস্থা বদলানোর প্রয়োজন |২‚৫০০ লাইক ও বহুল শেয়ারের মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে পড়েছে পোস্টটি |

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here