একজনের জীবনে দ্বিতীয় স্বামী তিনি | আর এক জনকে তিনি নিজের হাতে তৈরি করেছিলেন | এনেছিলেন পাদপ্রদীপের আলোয় | প্রথমজন জানকী রামচন্দ্রণ | দ্বিতীয় জন জয়ললিতা জয়রামণ | এই দুই -এর দ্বৈরথে আবর্তিত হয় প্রবাদপ্রতিম অভিনেতা MGR-এর জীবন |

Banglalive

জানকীও ছিলেন MGR-এর নায়িকা | তবে বিয়ের পরে ছেড়ে দেন অভিনয় | রাজনীতিতেও আগ্রহ ছিল না | অথচ স্বামীর মৃত্যুর পর আসতেই হল রাজনীতির ময়দানে | আনল দলের জয়ললিতাবিরোধী লবি |  

রামচন্দ্রণ কোনও উত্তরাধিকার ঘোষণা করে যাননি | বলতেই পারতেন তাঁর পরে AIADMK সামলাবেন জয়ললিতা | কিন্তু বলেননি | অনেকেই মনে করেন তিনি চেয়েছিলেন তাঁর পরে দলের অস্তিত্ব যেন না থাকে |

জীবনের ধ্রুবতারার এহেন আচরণে জয়ললিতা নিজে কম বিস্মিত হননি | জয়া ভাবতেই পারতেন না‚ সেই ব্যক্তি‚ যাঁর হাতে আদরের আম্মুকে তুলে দিয়েছিলেন মা সন্ধ্যা‚ সেই ব্যক্তি তাঁকে উত্তরাধিকার হিসেবে চিহ্নিত করে যাবেন না |  

জয়ললিতার কাছে তাঁর গুরুর মৃত্যু-সংবাদ এসেছিল অনেক পরে | তিনি শুনে ছুটে যান তাঁর বসতবাড়িতে | কিন্তু মুখের উপর বন্ধ হয়ে যায় দরজা | বন্ধ দরজার আগল ভেঙে ঢোকেন জয়া | সারা বাড়ি পাগলের মতো ছুটে বেড়ান‚ কিন্তু কোত্থাও নেই তাঁর পথপ্রদর্শকের নশ্বর দেহ |

শেষে জানতে পারেন MGR-এর দেহ নিয়ে যাওয়া হয়েছে রাজাজি হল-এ | সেখানে পৌঁছে শ্রান্ত অবসন্ন বিধ্বস্ত আম্মু দেখলেন ফুলহাতা জামা‚ টুপি আর কালো চশমা পরে অন্তিম শয়ানে শায়িত তাঁর জীবনের সর্বস্ব |

জয়া কিন্তু কাঁদলেন না | টু শব্দটিও করলেন না | সন্তর্পণে গিয়ে দাঁড়ালেন MGR-এর মাথার পাশে | এবং সেই যে দাঁড়িয়ে থাকলেন‚ স্থানুবৎ রইলেন টানা প্রায় দেড় দিন | এক মুহূর্তের জন্যেও তাঁকে সেখান থেকে সরানো যায়নি |

সরাতে চেষ্টা কিছু কম হয়নি | জানকীর সহযোগীরা বারবার নানা অছিলায় পা চিপে দেয় জয়ার | দেওয়া হয় নখের খোঁচা আর চোরাগোপ্তা চিমটি | কিন্তু জয়াকে তাঁর গুরুর পাশ থেকে এক বিন্দুও সরানো যায়নি |

শেষ অবধি মনের জোরে পারলেও পারলেন না গায়ের জোরে | MGR কে যে গান ক্যারেজে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল‚ সেখানে একটিবার ফুলের স্তবক রাখতে চেয়েছিলেন জয়া | কিন্তু তাঁকে ঠেলে সরিয়ে দেন জানকীর আত্মীয় দীপন | জানকী ঘনিষ্ঠ বিধায়কদের কাছ থেকে উড়ে আসে বিদ্রূপ রক্ষিতা আহত অপমানিত লাঞ্ছিত জয়ললিতা সেনাবাহিনীর পাহারায় ফিরে আসেন বাড়িতে | যাননি MGR-এর শেষকৃত্যে |

MGR-এর মৃত্যুর এক মাসের মধ্যে ৯৭ জন বিধায়কের সমর্থনে জানকী বসলেন মসনদে | কিন্তু মাত্র ২২ দিন চলল তাঁর মুখ্যমন্ত্রিত্ব | অনাস্থা ভোটে চরম অব্যবস্থা | শেষে ওই সরকার বাতিল করলেন তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধী | ১৯৮৯ সালের নির্বাচনে করুণানিধির DMK জয়ী হল বটে | কিন্তু বিরোধী নেত্রী হয়ে পুরো AIADMK-কে এক ছাতার নিচে আনলেন জয়ললিতা |

১৯৯১ সালে তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী হলেন MGR-এর আম্মু | অন্যদিকে রাজনীতি থেকে বিদায় নিলেন জানকী | শেষ হল জয়া-জানকী যুদ্ধ |

আরও পড়ুন:  পোষা সিংহ বাড়িতে বাঁধা শিকলে‚ চূড়ান্ত সমালোচিত শাহিদ আফ্রিদি

NO COMMENTS