ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে খান এই খাবারগুলো

1113

আমরা কখন যে কী খাচ্ছি তা সবসময় খেয়াল করে খেতে পারি না | খিদে পেলেই যা হোক কিছু একট কিনে বা বানিয়ে খেয়ে নিই | কিন্তু আপনি যদি হন ডায়বেটিস আক্রান্ত রোগী তবে খাওয়াদাওয়ার ব্যাপারে আপনাকে খুবই সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে |  সব পুষ্টিকর খাবারই যে ডায়বেটিসের রোগীদের জন্য উপকারী তাও নয় | সারা পৃথিবীর বহু মানুষই ডায়বেটিসের সমস্যায় ভোগেন | আপনি যদি ডায়বেটিক রোগী হন তাহলে নিজের খাদ্যতালিকায় ফাইবারসমৃদ্ধ শাকসব্জি রাখার চেষ্টা করুন | একেবারে পেট ভরে না খেয়ে বারবার অল্প অল্প করে খাবার খাওয়ার চেষ্টা করুন | ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে খাওয়াদাওয়ার সঠিক নিয়ন্ত্রণ কিন্তু খুবই জরুরি | আসুন জেনে নেওয়া যাক কয়েকটি এমন খাবারের কথা যা ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করতে পারে |

১| রাঙা আলু : আলু ডায়বেটিস রোগীদের জন্য ক্ষতিকারক হলেও রাঙা আলু উপকারী | এতে থাকা কার্ব রক্তে সুগার নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে | রাঙা আলুর গ্লাইসেমিক ইনডেক্স ৫৫-র থেকে কম | (গ্লাইসেমিক ইনডেক্স হল একটি একক যা বোঝায় কোনও খাধ্যে কতখানি কার্বহাইড্রেট রয়েছে এবং তা আপনার শরীরের সুগারের উপর কীরকম প্রভাব ফেলতে পারে | )

২| পালং শাক : রক্তে সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে বিশেষ সহায়তা করে ফাইবারসমৃদ্ধ পালং শাক | পালং শাকের গ্লাইসেমিক ইনডেক্স ১৫-র থেকেও কম | ডায়বেটিসের রোগীদের ক্ষেত্রে ওজন বেড়ে যাওয়াও একটি গুরুতর সমস্যা | কম ক্যালোরি সমৃদ্ধ হওয়ায় পালং শাক ওজন কমানোর ক্ষেত্রেও সহায়তা করে |

৩| চিয়া সীডস : চিয়া সীডসে রয়েছে ফাইবার‚ জিঙ্ক‚ আয়রন‚ ক্যালশিয়াম ও ম্যাগনেশিয়াম | অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও অ্যান্টিইনফ্লেমেটরি উপাদানে সমৃদ্ধ চিয়া সীডস ডায়বেটিক রোগীদের সুগার নিয়ন্ত্রণে খুবই কার্যকর | চিয়া সীডস এমনিও খাওয়া যায় অথবা খাবারের সঙ্গে মিশিয়েও খেতে পারেন |

৪| করলা বা উচ্ছে : স্বাদে যতই তেঁতো হোক‚ করলা বা উচ্ছের গুণ কিন্তু মিষ্টি | ডায়বেটিক রোগীদের জন্য করলা বা উচ্ছে অত্য়ন্ত উপকারী একটি উপাদান এ বিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই | এতে অনেক অ্যান্টি-ডায়বেটিক গুণাবলী রয়েছে | এর কেরাটিন নামক উপাদানটি রক্তে সুগারের মাত্রা কমাতে সাহয্য করে | এতে রয়েছে ইনসুলিনের মত একটি উপাদান যার নাম পলিপেপটাইড-পি বা পি-ইনসুলিন যা ডায়বেটিস প্রতিরোধে বিশেষভাবে সহায়ক |

৫| কমলালেবু : সাইট্রাস জাতীয় ফল রক্তে সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে | সাইট্রাস জাতীয় ফল হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই কমলালেবু অ্যান্টিঅক্সিডেন্টেও সমৃদ্ধ | ফাইবার সহজে ভেঙে না গিয়ে শরীরের স্বাভাবিক সুগারের মাত্রা বজায় রাখে | কমলালেবুর রস না খেয়ে কমলালেবু চিবিয়ে খেলে তা ডায়বেটিসের রোগীদের ক্ষেত্রে বেশি কার্যকরী হবে |

Advertisements

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.