সবজি বা ফল নয়, অধিক পুষ্টিগুণ রয়েছে এইসব বীজে

অনেক ফল বা সবজির বীজই ফেলে দেওয়া হয়। তবে সব বীজ কিন্তু ফেলে দেওয়ার নয়। কারণ অনেকেই জানেন না, কিছু কিছু ফল, সবজি এবং শস্যের বীজে রয়েছে অসাধারণ কিছু পুষ্টিগুণ যা শরীরের পক্ষে খুবই উপকারি। জেনে নিন এমনই কিছু বীজের গুণাগুণের কথা…

১) ডালিমের বীজ- অনেকেই ডালিম খেতে খুবই পছন্দ করে। তবে ডালিম এমনই একটা ফল যা খাওয়ার সময়ে ফল থেকে বীজ আলাদা করার প্রয়োজন পড়ে না। আর বিশেষজ্ঞরা বলেন এতেই উপকার বেশি। কারণ এটি হৃদরোগের হাত থেকে মুক্তি দিতে বিশেষভাবে সাহায্য করে থাকে। এর বীজে কোনো ক্যালোরি নেই। রয়েছে প্রচুর পরিমানে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, ভিটামিন সি যা শরীরের অতিরিক্ত ফ্যাট কমাতে সাহায্য করে।

২) কুমড়োর বীজ- কুমড়োর বিচিতে প্রচুর পরিমাণে আয়রন রয়েছে। সেইসঙ্গে কুমড়ো বীজ স্বাস্থ্যকর ফ্যাট এবং নানা ধরনের অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের সমৃদ্ধ, যা হার্টের জন্য উপকারী। এছাড়াও এতে রয়েছে মনোস্যাচুরেটেড ফ্যাটি অ্যাসিড যা রক্তে ক্ষতিকর কোলেস্টোরল কমাতে এবং উপকারী কোলেস্টোরল বাড়াতে বিশেষভাবে সাহায্য করে। আর এতে থাকা ম্যাগনেশিয়াম রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখে।

৩) তিল- তিলে রয়েছে ম্যাগনেসিয়ামের মত গুরুত্বপূর্ণ উপাদান যা ইনসুলিন ও গ্লুকোজ স্বাভাবিক রাখতে সাহায্য করে। ডায়াবেটিসকে হ্রাস করতে সাহায্য করে। এছাড়া তিলে রয়েছে ম্যাগনেসিয়াম, যা উচ্চ রক্তচাপ কমাতে বিশেষভাবে সাহায্য করে।

৪) তিসি বীজ- তিসিতে রয়েছে উপকারী ওমেগা-৩ ও ওমেগা-৬, যা দেহের ইমিউন সিস্টেম উন্নত করে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে। বিশেষজ্ঞরা বলেন তিসির বীজ ক্যান্সার প্রতিরোধেও বিশেষভাবে সাহায্য করে।

৫) সূর্যমুখী ফুলের বীজ- মূলত হাড়ের ব্যথা, গ্যাস্ট্রিক আলসার, হাঁপানি ইত্যাদি রোগ সারিয়ে তুলতে বিশেষভাবে সাহায্য করে সূর্যমুখীর বীজ, কারণ এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। বিশেষজ্ঞরা বলে প্রতিদিন ১/৪ কাপ সূর্যমুখী বীজ হার্ট এর সমস্যা থেকে দূরে রাখে।

৬) অঙ্কুরিত গম – কারওর যদি হজমের সমস্যা থাকে তাহলে অঙ্কুরিত গম খাওয়া সবথেকে উপকারী। এছাড়াও অঙ্কুরিত গমে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ই এবং ফাইবার, যা স্বাস্থ্যের পক্ষে বিশেষ উপকারী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here