ঋণ শোধ করতে বিনা পারিশ্রমিকে দুই ভাইকে গান শেখাতেন ‘গান না জানা সঙ্গীতশিক্ষক’…এভাবেই হয়ে গেলেন সুরকার

3078

গুজরাতের কচ্ছে ব্যবসা ভাল চলছিল না | বীরজি শাহ চলে এসেছিলেন বম্বে | খুলেছিলেন মুদির দোকান | তখন কি আর জানতেন দুই ছেলে দোকানে মন দেবেন না | তাঁদের জগৎ হবে সুরসাধনার | কারণ তাঁরাই ভবিষ্যতের কল্যাণজি-আনন্দজি জুটি | কল্যাণজির ৮৯ তম জন্মদিনে তাঁর প্রতি শ্রদ্ধার্ঘ্য | তাঁরই জীবনের নানা কথায় |

# জন্ম ১৯২৮ সালের ৩০ জুন | ভাই আনন্দজি তাঁর থেকে ৫ বছরের ছোট | শৈশব কেটেছে সাবেক বম্বেতে‚ মরাঠি ও গুজরাতি জনবসতির মাঝে |

# ছোটবেলায় দুই ভাই এমন একজনের কাছে গান শিখতেন যিনি গানের বিশেষ কিছু জানতেন না | তাঁদের বাবার কাছে অনেক টাকা ধার ছিল | তাই দুই ভাইকে বিনা পারিশ্রমিকে  গান শিখিয়ে সেই টাকা শোধ করতেন |

# শাহ পরিবারের এক পূর্বপুরুষ ছিলেন লোকগান শিল্পী | তাই হয়তো দুই ভাইয়ের রক্তে রয়ে যায় সঙ্গীত সাধনার বীজ |

# কেরিয়ারের শুরুতে বাজিয়ে ছিলেন কল্যাণজি | বাজাতেন Clavioline | সেটাই ব্যবহৃত হয়েছিল নাগিন ছবিতে | নাগিনবীণ হিসেবে | সুরকার ছিলেন হেমন্ত মুখোপাধ্যায় |

# সুরকার হিসেবে কল্যাণজির প্রথম ছবি সম্রাট চন্দ্রগুপ্ত‚ ১৯৫৯ সালে | কয়েক বছর পরে ভাই এলেন দাদার সহকারী হয়ে | তারপর জুটি বাঁধলেন |

# ২৫০-র বেশি ছবিতে সুর দিয়েছে এই জুটি | তার মধ্যে উজ্জ্বল মণিমুক্তোগুলি হল ডন‚ কুরবানি‚ ত্রিদেব‚ সফর-এর মতো ছবি | সাফল্যের রহস্য ছিল প্রতিভা ও কঠোর পরিশ্রম | ১৯৭৫ সালে শ্রেষ্ঠ সুরকার হিসেবে ফিল্ম ফেয়ার পুরস্কার লাভ করেন | 

# যুক্ত ছিলেন বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী উদ্যোগেও | নামীদামী শিল্পীদের নিয়ে চ্যারিটেবল শো করেছেন |

# সুযোগ দিয়েছেন নতুন প্রতিভাদের | তাঁদের ছত্রছায়াতে বিকশিত হয়েছিলেন মনোহর উধাস‚ কুমার শানু‚ অলকা ইয়াগনিক‚ সাধনা সরগম‚ উদিত নারায়ণ‚ স্বপ্না মুখার্জি‚ উদিত নারায়ণ‚ সাধনা সরগমের মতো শিল্পীরা |

# লতা মঙ্গেশকরের জন্য ২৯৭ টি গানে সুর দিয়েছে এই জুটি | একই সংখ্যক গান আশা ভোঁসলের জন্যেও |

# ২০০০ সালের ৩ নভেম্বর ৭২ বছর বয়সে প্রয়াত হন সুরকার কল্যাণজি বীরজি শাহ | 

Advertisements

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.