ওজন কমাতে উপকারী ব্রেকফাস্ট

ওজন কমাতে উপকারী ব্রেকফাস্ট

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

ওজন বেড়ে যাওয়া বা মেদ বেড়ে যাওয়ার সমস্যায় ভোগেন অধিকাংশ ভারতীয়ই | এখন যেহেতু বেশিরভাগ মানুষেরই শারীরিক শক্তি প্রয়োগ করার মত কাজ করা হয়ে ওঠেনা‚ বেশিরভাগ সময়ই অফিসে এক জায়গায় বসে কাজ করতে হয়‚ তাই ওজন বা মেদ বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়ে শরীরের অন্যান্য নানান সমস্যাও | অনেকেরই ভুল ধারণা আছে যে না খেয়ে থাকলে মেদ কমানো বা রোগা হওয়া যায় | বলা বাহুল্য এই ধারণা একেবারেই ভুল | যথাযথ খাওয়াদাওয়া এবং শরীর চর্চার সাহায্যে শরীরের মেদ কমানো যেতে পারে |

খাওয়াদাওয়ার ক্ষেত্রে একটি বড় ভূমিকা থাকে প্রাতঃরাশের | দিনের শুরুতেই প্রোটিন সমৃদ্ধ প্রাতঃরাশ খেয়ে দিন শুরু করলে তা শরীরের পক্ষে হয় স্বাস্থ্যকর | অনেকেই প্রাতঃরাশকে ততটা গুরুত্ব দেন না বা অনেক সময়ই খাওয়ার প্রয়োজন মনে করেন না | কিন্তু এতে শরীরের ক্ষতি হয় | বহুক্ষণ ঘুমোনোর পর সকালবেলায় খাওয়া প্রথম খাবার দেহের মেটাবলিজমকে কাজ করতে শুরু করায় | প্রাতঃরাশ না করলে শরীরের প্রয়োজনীয় শক্তিও পাওয়া যায় না | সকালে ঘুম থেকে উঠেই খিদের চোটে কোনও ভারি খাবার খেয়ে নিলেও সারাদিনে ক্যালোরি – কাউন্টে সমস্যা দেখা দিতে পারে |

সকালে কি খাবেন তা আগে থেকেই যদি ঠিক করে রাখা যায় তাহলে পেট ভরাতে চটজলদি কোনও তেলতেলে বা ভারি খাবার খাওয়ার দরকার পড়বেনা | চেষ্টা করুন প্রতঃরাশে প্রোটিনসমৃদ্ধ খাবার যোগ করার | প্রোটিনসমৃদ্ধ খাবার দেহের মধ্যে একরকমের তৃপ্তির ভাব ছড়িয়ে দেয় | খিদে পাওয়ার হরমোন ঘ্রেলিনের মাত্রাও নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে প্রোটিন | ফলে দিনের অন্য সময়ে আপনি আর অন্য কোনও ভারি খাবার খাওয়ার কথা ভাববেন না |

প্রাতরাশের জন্য আদর্শ কিছু খাবার হল ডিমের পোচ‚ ওট‚ শস্যজাতীয় খাবার | এছাড়াও তৈরি করে নিতে পারেন একটি আদর্শ দেশি প্রাতঃরাশ যার নাম চিলা | খুবই সহজে বানানো যায় এই পদটি | বেশ খানিকটা বেসনের সঙ্গে প্রয়োজনমত নুন‚ গোলমরিচ দিয়ে তার মধ্যে অল্প জল দিন | এবারে কুচি কুচি করে কাটা পেঁয়াজ‚ টমেটো‚ ধনেপাতা‚ লঙ্কা ও পনিরের টুকরো দিয়ে ভাল করে মিশিয়ে একটি পাতলা মিশ্রণ বানিয়ে নিন | তেল ছাড়াই ফ্রাইং প্যানে মিশ্রণটি দিয়ে গোটা প্যানে খুন্তি দিয়ে ধোসা বানানোর মত করে ছড়িয়ে দিন | হাল্কা বাদামী রং হওয়া অবধি সেঁকে নিন দুদিক | ব্যাস‚ হয়ে গেল তৈরি চিলা | সসের সঙ্গে খেতে পারেন এই পদটি | এতে থাকা সবকটি উপাদানই প্রোটিন সমৃদ্ধ যা আপনার শরীরের মেটাবলিজমকে সঠিক রাখতে ও মেদ গলাতে সহায়তা করবে | তাহলে আর দেরি কেন? কাল সকালেই তৈরি করে খেয়ে দেখুন এই স্বাস্থ্যকর ও সুস্বাদু প্রাতরাশের পদটি |

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

Leave a Reply

Social isolation to prevent coronavirus

অসামাজিকতাই একমাত্র রক্ষাকবচ

আপনি বাঁচলে বাপের নাম— এখন আর নয়। এখন সবাই বাঁচলে নিজের বাঁচার একটা সম্ভবনা আছে। সুতরাং বাধ্য হয়ে সবার কথা ভাবতে হবে। কেবল নিজের হাত ধোওয়ার ব্যবস্থা পাকা করলেই হবে না। অন্যের জন্য হাত ধোওয়ার ব্যবস্থা রাখতে হবে। এক ডজন স্যানিটাইজ়ার কিনে ঘরে মজুত রাখলে বাঁচা যাবে না। অন্যের জন্য দোকানে স্যানিটাইজার ছাড়তে হবে। আবেগে ভেসে গিয়ে থালা বাজিয়ে মিছিল করলে হবে না। মনে রাখতে হবে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, জানলায় বা বারান্দায় দাঁড়িয়ে থালা বাজাতে। যে ভাবে অন্যান্য দেশ নিজের মতো করে স্বাস্থ্যকর্মীদের উদ্বুদ্ধ করছে। রাস্তায় বেরিয়ে নয়। ঘরে থেকে।