ঋতু পরিবর্তনের সঙ্গে পাল্টে যায় এই রহস্যময় জলপ্রপাতের রং

828

প্রকৃতির এমন প্রচুর দিক রয়েছে যার সঠিক ব্যাখ্যা এখনো পাওয়া যায়নি । আবার এমনও অনেক বিষয় রয়েছে, যার বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা জানার পরও অবাক হতে বাধ্য হই আমরা । এরকমই একটি স্থান রয়েছে কানাডার আলবের্তা প্রদেশে। সেখানকার ‘ওয়াটারটন লেকস ন্যাশনাল পার্ক’-এ রয়েছে ক্যামেরন জলপ্রপাত। এমনিতে দেখতে সাধারণ জলপ্রপাতের মতো হলেও, এর রয়েছে এক বিশেষ আকর্ষণ।

কানাডার অ্যালবার্টা ওয়াটরন লেকস ন্যাশনাল পার্কের ক্যামেরন জলপ্রপাত। সাধারণত এই জলপ্রপাতের রং স্বচ্ছ। তবে বৃষ্টি হলে বা বিশেষত বর্ষাকালে এই জলপ্রপাতের রং-এর পরিবর্তন হয়। আর সেই দৃশ্য রোমাঞ্চকর। এই দৃশ্য যেই পর্যটকরা উপভোগ করতে পেরেছেন তারা নিজেদের ভাগ্যবান বলে মনে করেন। জলপ্রপাতের রং-এর পরিবর্তনের জন্য অনেকেরই ভ্রান্ড ধারণা ছিল এখানে গুপ্তরত্ন রয়েছে, যার ফলেই রং এর পরিবর্তন হয়। পরে অবশ্য ভূতত্ত্ববিদরা এই রহস্যের সমাধাণ করেছেন।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, যেদিন খুব বৃষ্টি হয়, সেদিনই গোলাপি জলের ধারা নেমে আসতে দেখা যায় পাহাড়ের উপরে নদী থেকে। এমনিতে দেখতে সাধারণ জলপ্রপাতের মতো হলেও, এর রয়েছে এক বিশেষ আকর্ষণ। বর্ষার সময়ে এখানে চলে প্রকৃতির খেলা। গোলাপি জলের ধারার সঙ্গে সূর্যের আলো মিলেমিশে মোহময়ী হয়ে ওঠে নদীর রূপ। বর্ষার সময়ে ক্যামেরন জলপ্রপাতের রং গোলাপি হয়ে যায়। আর দিনের আলোর পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে জলের রং কখনও হয়ে যায় টুকটুকে লাল, কখনও বা গাঢ় কমলা।

এ বিষয়ে ভূতত্ত্ববিদরা জানিয়েছেন, ক্যামেরন জলপ্রপাতের সংলগ্ন অঞ্চলে ‘অ্যাগ্রোলাইট’ নামে এক ধরনের পলি মাটি রয়েছে। বর্ষায় বৃষ্টির স্রোতে এই পলি মাটি যখন হ্রদের জলের সঙ্গে মেশে তখন গোলাপি রং ধারণ করে।

পর্যটকরা জানিয়েছে, প্রকৃতির অপরূপ সৌন্দর্যের অনন্য নিদর্শন হল এই জলপ্রপাত। এখানে এলে এক অন্য প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের সন্ধান পাওয়া যায়। তবে তার জন্য অবশ্যই আসতে হবে বর্ষায় । কারণ সারা বছর এখানে জলের রঙ সাধারণ থাকলেও আশ্চর্যভাবে তা বর্ষাকালে পরিবর্তন করে। বর্ষার সময় জলপ্রপাত ও তার সংলগ্ন হ্রদের জল দেখতে এতটাই সুন্দর যেন মনে হবে কোনও ম্যাজিকের প্রদর্শনী চলছে।

Advertisements

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.