মাইক্রোওয়েভ ওভেনের যত্ন নেবেন কীভাবে?

2574

খাবার গরম করতে বা সহজে রান্না করার জন্য আমরা অনেকেই মাইক্রোওয়েভ ওভেনের সাহায্য নিয়ে থাকি | কিন্তু মাইক্রোওয়েভ ব্যবহার করার সময় আমরা প্রায়শই একটা জিনিস ভুলে যাই তা হলো এই যন্ত্রের মেনটেনন্স | আমরা মাইক্রোওয়েভ কী ভাবে ব্যবহার করছি তার ওপর নির্ভর করে কতদিন এই যন্ত্র ঠিকমত কাজ করবে | সাধারণত দেখা গেছে ৫-১০ বছর অবধি মাইক্রোওয়েভ ঠিকমত কাজ করে | আজকে কয়েকটা সহজ টিপ্স দেওয়া হলো যা মেনে চললে আপনার মাইক্রোওয়েভ ওভেন আরো দীর্ঘদিন ঠিক থাকবে |

১) মাইক্রোওয়েভ ওভেন পরিষ্কার রাখুন : মাইক্রোওয়েভের আয়ু বাড়াতে চান? তাহলে নিয়মিত মাইক্রোওয়েভ পরিষ্কার রাখুন | অনেকেই জানে না মাইক্রোওয়েভের ভিতরে খাবারের টুকরো‚ তেল ঝোল পড়ে থাকলে তা যন্ত্রের ক্ষতি করে | মাইক্রোওয়েভ পরিষ্কার করার আলাদা সবান বা ক্লিনার পাওয়া যায়‚ তাই ব্যবহার করতে পারেন বা যে কোন লিকুইড শোপ আর জল দিয়ে মাইক্রোওয়েভ নিয়মিত পরিষ্কার রাখুন |

এছাড়াও মাঝে মধ্যে শুকনো কাপড় দিয়ে বাইরেটা মুছে নিতে হবে | ওভেনের পিছন দিকে যাতে কোনো ময়লা না জমে সে দিকেও খেয়াল রাখুন |

২) মাইক্রোওয়েভের জন্য তৈরি পাত্র ব্যবহার করুন : সব সময় মাইক্রোওয়েভ ওভেন প্রুফ পাত্র ব্যবহার করুন | সেরামিক আর কাঁচের পাত্রে খাবার গরম করতে পারেন | প্ল্যাস্টিকের পাত্র ব্যবহার করলে সেটা ওভেন প্রুফ কি না তা জেনেই তবে ব্যবহার করুন | অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল‚ মেটাল বা রূপোর বাসন ব্যবহার করবেন না |

যদি দেখেন মাইক্রোওয়েভ ব্যবহার করার পর‚ খাবারের থেকে পাত্র বেশি গরম হয়ে গেছে তাহলে সেই পাত্র ব্যবহার না করাই ভালো |

৩) মাক্রোওয়েভের দরজা ধীরে বন্ধ করুন : অনেক ক্ষেত্রেই দেখা গেছে আমরা মাইক্রোওভেনের দরজা জোরে বন্ধ করছি | অনেকের হাতে খাবার থাকে বলে কনুয়ের সাহায্যেও দরজা বন্ধ করি | বা অনেক সময় মাইক্রোওয়েভ বন্ধ না করেই টেনে দরজা খুলে ফেলি | এর ফলে ধীরে ধীরে মাইক্রোওয়েভ যন্ত্র খারাপ হয়ে যায় | তাই মাইক্রোওয়েভের দরজা বন্ধ করার সময় ধীরে দরজা বন্ধ করুন | বা মাইক্রোওয়েভ যখন চলছে তার মাঝে দরজা খোলার চেষ্টা না করাই ভালো |

৪) কোন ধরণের খাবার বানাচ্ছেন বা কী গরম করছেন সেই ব্যাপারে সচেতন হন : কিছু জিনিস মাইক্রোওয়েভে গরম না করাই ভালো | কিছু খাবার যেমন আস্ত আলু‚ সসেজ বা এই ধরণের খাবার মাইক্রোওয়েভ ওভেনে রান্না করার আগে কাঁটা চামচ দিয়ে ফুটো করে নিতে হবে | ডিম সেদ্ধ করার চেষ্টা করবেন না | ডিম পোচ করলে ডিম ভেঙে কুসুম টুথপিক দিয়ে ফুটো করে নিতে হবে |

৫) একবারে বেশি পরিমাণের খাবার গরম করার চেষ্টা করবেন না : সব মাইক্রোওয়েভ ওভেনের একটা ক্যাপাসিটি থাকে | বেশির ভাগ সময়তেই মাইক্রোওয়েভের ওজনের তুলনায় আমরা কম ওজনের খাবার ব্যবহার করি | কিন্তু যখন বেশি পরিমাণে খাবার থাকে তা গরম করার আগে মাইক্রোওয়েভের ওয়েট ক্যাপাসিটিটা একবার দেখে নিন | বেশিরভাগ মাইক্রোওয়েভ ওভেনের দরজায় ওয়েট ক্যাপাসিটি লেখা থাকে জোর করে বেশি পরিমাণে খাবার ঢোকালে মেশিনের ওপর চাপ পড়বে | এছাড়াও খাবার ভালো করে গরম হবে না বা আধসেদ্ধ থাকবে |

৬) ওভেন ব্যবহার করার আগে ও পরে সাবধনতা অবলম্বন করুন : আগেই বলেছি ওভেন প্রুফ পাত্র ব্যবহার করুন | এছাড়া কাঠের চামচ ব্যবহার করাই ভালো | অল্প ভোল্টজে ওভেন চালাবেন না | ওভেন কাঠের টেবিলে রাখুন | মাটি থেকে বেশি উঁচু স্থানে না রাখাই ভালো | মাইক্রো ওভেনের মাথায় জিনিস না রাখাই ভালো | প্ল্যাগ থেকে তার খুলে তারপর মাইক্রো ওয়েভ পরিষ্কার করুন |

অতিরিক্ত টিপ : মাইক্রোওয়েভে ওভেনের ভেতরের গন্ধ দূর করবেন কী করে?

মাইক্রোওয়েভ ওভেন প্রুফ বাটিতে অল্প জল নিন | এতে একটা পাতি লেবুর রস মেশান | এরপর  সেই পাত্রে খোসাসহ লেবু, জলের মধ্যে রেখে তা তিন মিনিট গরম করে নিন | এতে ওভেনের ভেতরের দুর্গন্ধ দূর হবে | এছাড়াও বেকিং সোডা দিয়েও মাইক্রোওয়েভের গন্ধ দূর করতে পারেন | এর জন্য খানিকটা বেকিং সোডা মাইক্রোওয়েভের ভেতর ছড়িয়ে দিন | খানিক্ষণ রেখে একটা পরিষ্কার ভিজে কাপড় দিয়ে মুছে নিন |

Advertisements

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.