এসে গেল বাঙালির ভ্যালেনটাইনস ডে‚ মানে সরস্বতী পুজো | স্কুল কলেজের ছাত্রীরা এখন ব্লাউজের ফিটিং নিয়েই মত্ত | অফিসে যাঁরা কাজ করেন তাঁরা হয়ত ভাবছেন এই সুযোগেই একটু সেজেগুজে বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা দেবেন জমিয়ে | আর গৃহবধূ হলে তো এখন পুজোর আয়োজনেই নিঃশ্বাস ফেলার সময় নেই আপনার হাতে | সঙ্গে হয়ত এও ভাবছেন আত্মীয় – স্বজনদের আসরে কীভাবে সেজে হয়ে উঠবেন মধ্যমণি | সরস্বতী পুজোয় বাঙালির জাতীয় পোশাক কিন্তু শাড়ি আর ধুতি পাঞ্জাবি | যতই আপনি হোন হাল ফ্যাশনের‚ এই একটা দিন সাবেকিয়ানার আমেজে ম ম করবে আপনার মন | তাই নজরকাড়া হয়ে উঠতে আপনার পছন্দের শাড়িটিকেই একটু অন্য রকম ভাবে পরে তাক লাগিয়ে দিন সবাইকে |

১| বাড়িতে পুজো মানেই যেকোনো বাঙালি মেয়েরই পছন্দের তালিকায় প্রথম থাকবে এই আটপৌরে করে শাড়ি পরার ধরণ। সারাক্ষণ জিন্স বা টপে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করা এই আপনিই ওই একটা দিন সাবেকিয়ানার জেরে আটপৌরে সাজে সেজে উঠতে চাইবেন। আটপৌরে করে শাড়ি পরার জন্য কোমরের ডানদিকে শাড়ি গুঁজে একপাক পেঁচিয়ে নিন। এরপর একটু চওড়া করে প্লিট করুন। বাঁদিকে যেভাবে সাধারণত আঁচল করেন, সেভাবেই করে নিন। তারপর শাড়ির পেছনের বড় অংশটাকে সামনে ঘুরিয়ে এনে ডান কাঁধের ওপর ফেলে রাখুন। ডান কাঁধের আঁচলে একটা চাবির রিং ঝুলিয়ে নিন। একেবারে জমিদার বাড়ির গিন্নিদের মত সাবেক সাজে সরস্বতী পুজোয় তোলা সব ছবিতে আলাদা করে চেনা যাবে আপনাকে।

Banglalive-6

Banglalive-8

২| পুজোর দিন যদি সিল্কের শাড়ি পরার কথা ভেবে থাকেন, তাহলে এই কায়দাটি ব্যবহার করে দেখতে পারেন। গুজরাটি শাড়ি পরার একটি ধরণ এটি। যেরকম ভাবে আমরা শাড়ি পরি সেভাবেই প্রথমে পরে নিন। প্লিট সামনে করে। তার সঙ্গে শাড়ির আঁচলও বাঁদিক থেকে ডানদিকে এনে ‘V’-  এর মত আকারে এনে সেফটি   পিন লাগিয়ে নিন। এইভাবে শাড়ি পরাকে রাজরাণী কায়দায় শাড়ি পরা বলা হয়।

Banglalive-9

৩| শাড়ি পরার আরেকটি ধরণ হল গুজরাটি সিধা পল্লু। যেরকম ভাবে শাড়ির নিচের অংশটায় কুঁচি করা হয় সেভাবেই প্রথমে পরে নিন। তারপর আঁচলটাকে ঘুরিয়ে সামনে নিয়ে এসে পরুন। যেকোনো ভারী শাড়িই আপনি এইভাবে পরতে পারবেন।

আরও পড়ুন:  কলাপাতায় খাওয়া স্বাস্থ্যের পক্ষে কতটা উপকারী জেনে নিন

৪| আসামের মেয়েরা এই পদ্ধতিতে শাড়ি পরে। এই শাড়ি কে বলা হয় মেখলা ।  মেখলার  আবার দুটি অংশ থাকে। নীচের অংশটি কুঁচি দিয়ে প্লিট করে পরতে হয়। আর ওপরের অংশটির শেষভাগটি কোমরের কাছে বাঁদিকে গুঁজতে হয় ত্রিভুজের মতো করে। আঁচলের শেষভাগ কাঁধে শালের মতো করে ফেলে রাখতে হয়।

৫| তামিলনাড়ুর শাড়ি পরার সাবেকি ধরণ হল মাদিসারু। তামিলনাড়ুর সম্ভ্রান্ত ঘরের মহিলারা এইভাবে শাড়ি পরে থাকেন। তবে মাদিসারু কায়দায় শাড়ি  পরা একটু কঠিন।  নীচের অংশটি ধুতির কায়দায় আর ওপরের অংশটি শাড়ির কায়দায় পরতে হয়। ঠিকভাবে যদি পরতে পারেন, দেখবেন সবাই আপনার দিকেই একনজরে তাকিয়ে আছে!

NO COMMENTS