শীতের সবথেকে বড় একটি সমস্যা গোড়ালি বা পায়ের তলা ফেটে যাওয়ার সমস্যা। ঠোঁট ফাটার মতোই পায়ের গোড়ালি ফাটার ভোগান্তি কম নয়। আর ফাটা পায়ের তলা বা গোড়ালি নিয়ে হাঁটা চলা করাটাও বেশ কষ্টকর। অনেক কিছু করেও অনেক সময় দেখা যায় পা ফাটা সারানোই যায় না। এই পা ফাটা নিয়ে অনেক সময় লজ্জার সীমা থাকে না। পরিপাটি থাকার পরও কোথাও যেন মনে খুঁতখুঁতে লাগতে শুরু করে। আর তাই শীতের পা জোড়া সুন্দর রাখতে দু-তিনটি উপাদানই যথেষ্ট। তবে শীতের এই মারাত্মক সমস্যার চটজলদি সমাধান রয়েছে আপনার হাতের কাছেই। ঘরোয়া উপায়ে কয়েকদিনের মধ্যেই আপনি সমস্যার থেকে মুক্তি পাবেন। চলুন জেনে নেওয়া যাক সেই উপায়গুলি।

গ্লিসারিন ও পাতিলেবু-

হাফ কাপ গ্লিসারিনের মধ্যে একটা গোটা পাতিলেবুর রস নিয়ে ভাল করে মিশিয়ে একটি কন্টেনারে রেখে দিন। প্রতিদিন রাতে শুতে যাওয়ার আগে পায়ের ফাটা জায়গায় এই মিশ্রণ লাগিয়ে মোজা পরে নিন। সারারাত রেখে সকালে পা ধুয়ে ফেলুন। প্রথম রাতের ব্যবহারেই উপকার পাবেন।

Banglalive-6

যদি রাতে মোজা পরে ঘুমতে যেতে সমস্যা থাকে সেক্ষেত্রে আপনি যে সময়টা মোজা পরে কাটাতে পারবেন, তখনও এই মিশ্রণটি ব্যবহার করতে পারেন।

Banglalive-8

মধু ও উষ্ণ গরম জল-

Banglalive-9

একটি পাত্রে উষ্ণ গরম জল নিয়ে তাতে এক কাপ মধু ভাল করে মিশিয়ে নিন। এবারে ওই জলে ২০-৩০ মিনিট পা ডুবিয়ে রাখুন। এরপরে হালকা করে পায়ের ফাটা জায়গা ঘষে পরিষ্কার করে নিন। এরপর পা মুছে নিয়ে ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিন।

সপ্তাহে অন্তত দুবার এই পদ্ধতি মেনে চললে দ্রুত পা ফাটার সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন।

নারকেল ও কলা-

একটি পাত্রে টুকরো করে কাটা কলা, কিছুটা নারকেলের টুকরো নিয়ে ব্লেন্ডারে ভাল করে ব্লেন্ড করে নিন। এর পর এই মিশ্রণটি পায়ের ফাটা জায়গায় ভাল করে লাগিয়ে নিন। প্যাক শুকিয়ে গেলে সামান্য উষ্ণ গরম জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। যদি নারকেল না থাকে তবে ২-৩ চা চামচ নারকেল তেল দিয়ে মিশিয়ে মিশ্রণ তৈরি করেও লাগাতে পারেন। সমস্যার সমাধান হবে খুব দ্রুত।

আরও পড়ুন:  কেউ কি প্রতিনিয়ত আপনাকে অনুসরণ করছে? সমস্যা এড়াতে মাথায় রাখুন এই বিষয়গুলি...

NO COMMENTS