হবু শ্বশুরের পরামর্শেই ব্যবসাকে বেছে নিয়েছিলেন পেশা হিসেবে

হবু শ্বশুরের পরামর্শেই ব্যবসাকে বেছে নিয়েছিলেন পেশা হিসেবে

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

আনন্দ পিরামল | বর্তমানে বহুচর্চিত নাম | ধনীতম ভারতবাসী মুকেশ অম্বানির হবু জামাই তিনি | আনন্দ পিরামলের ব্যাপারে জেনে নেওয়া যাক কিছু সরগরম বিষয় |

 # ১৯৮৫ সালের ২৫ অক্টোবর আনন্দ পিরামলের জন্ম | ৩৩ বছরের এই তরুণ ব্যবসায়ী পুঁজিপতি মহারাষ্ট্রের মুম্বইতে থাকেন | রাজস্থানের বগার শহরে বড় হয়েছেন | 

#  মুম্বইয়ের ক্যাথিড্রাল এবং জন কনন স্কুলে পড়াশোনা করেন | পেনসিলভ্যানিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশনে মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেন | তারপরে হারভার্ড বিজনেস স্কুল থেকে স্নাতক হন আনন্দ ।

# বর্তমানে তিনি পিরামল এন্টারপ্রাইজের একজিকিউটিভ ডিরেক্টর পদে আসীন । হারভার্ড থেকে পাশ করার পরে তিনি ‘পিরামল-ই-স্বাস্থ্য’ এবং ‘পিরামল রিয়েলিটি’ নামে পর পর দু’টি স্টার্ট আপ চালু করেন। দু’টি সংস্থাই বর্তমানে ৪০০ কোটি ডলার মূল্যের পিরামলদের পারিবারিক ব্যবসার সফল অংশ বিশেষ। গ্রামীণ স্বাস্থ্য সংস্থা ‘পিরামল স্বাস্থ্য’ দিনে ৪০ হাজার রোগীর চিকিত্‍সা করে।

# ২০১৭ সালে হুরুন রিয়েল এস্টেট উইনিকর্ন অফ দ্য ইয়ার সম্মানে ভূষিত হন |  ২০১৮ সালে সেই বছরের শ্রেষ্ঠ তরুণ ব্যবসায়ী হিসেবে সম্মানিত হন আনন্দ | আনন্দের হাঁড়ির খবর জানেন কি ? প্রায় ৬ ফুট উচ্চতার এই স্বাস্থ্যবান ধনকুবেরের ওজন প্রায় ৮৫ কেজি |

# মাড়ওয়াড়ি ব্যবসায়ী পরিবারের সন্তান আনন্দের বাবা অজয় পিরামল পিরামল গ্রুপ ও শ্রীরাম গ্রুপের চেয়ারম্যান | মা স্বাতী পিরামল একজন ব্যবসায়ী এবং সঙ্গে ডাক্তারও | কাকা দিলিপ পিরামল ভিআইপি ইন্ডাস্ট্রিসের চেয়ারম্যান | আনন্দের দিদি নন্দিনী পিরামল |

#  ২০০৪ সালে কলেজে পড়াকালীন আনন্দ গুজরাতের গরিব মানুষদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য দিয়া নামের একটি এনজিও স্থাপন করেছিলেন | কন্সালটেন্সি ও ব্যবসার মধ্যে কোনটি তিনি করতে চান সেই নিয়ে দ্বন্দ্বে ছিলেন তিনি | পারিবারিক বন্ধু ও উপদেষ্টা মুকেশ আম্বানির পরামর্শে  তিনি ব্যবসায়ী হওয়াকেই পেশা হিসেবে বেছে নেন |

# পৃথিবীর নানা জায়গায় ঘুরে বেড়াতে ভালবাসেন আনন্দ | ফুটবল খেলা দেখতে ও ক্রিকেট খেলতে ভালবাসেন তিনি |

# বলিউড অভিনেতা হৃত্বিক রোশন ও বরুণ ধাওয়ান এবং অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ও দীপিকা পাদুকোনের ভক্ত তিনি | কোল্ডপ্লে ‚ আরিয়ানা গ্রান্ডে ও পিটবুলের মিউজিকেরও ভক্ত তিনি |

# ইন্ডিয়ান মার্চেন্ট চেম্বার অফ ইউথ উইং-এর তরুণতম সভাপতি  ছিলেন | 

# প্রিয় খাবার হল পনির মখনি | এছাড়াও তিনি ক্যমোমাইল টি আর লেমোনেড পছন্দ করেন |

# আনন্দ এবং ঈষা আদতে ছোটবেলার বন্ধু | তাঁদের পরিবারের মধ্যেও প্রায় চল্লিশ বছরের পরিচয় |

১২ ডিসেম্বর বিয়ে হতে চলেছে এই বিখ্যাত জুটির | সবার নজর আজ তাঁদেরই দিকে |

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

Leave a Reply

Handpulled_Rikshaw_of_Kolkata

আমি যে রিসকাওয়ালা

ব্যস্তসমস্ত রাস্তার মধ্যে দিয়ে কাটিয়ে কাটিয়ে হেলেদুলে যেতে আমার ভালই লাগে। ছাপড়া আর মুঙ্গের জেলার বহু ভূমিহীন কৃষকের রিকশায় আমার ছোটবেলা কেটেছে। যে ছোট বেলায় আনন্দ মিশে আছে, যে ছোট-বড় বেলায় ওদের কষ্ট মিশে আছে, যে বড় বেলায় ওদের অনুপস্থিতির যন্ত্রণা মিশে আছে। থাকবেও চির দিন।