২০০-রও বেশি বছর ধরে ব্রিটিশ চিলেকোঠায় সোনার কৌটোয় বাদাম ও টিপু সুলতানের তরবারি

এক ব্রিটিশ পরিবারের সূত্রে জানা গিয়েছে তাঁদের পূর্বপুরুষ মেজর থমাস হার্ট ছিলেন ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির সেনা অফিসার । ১৭৯৮-৯৯ সালে যখন ইঙ্গ-মহীশূরের যুদ্ধ হয়েছিল সেই যুদ্ধে টিপু সুলতানের বিরুদ্ধে কোম্পানির হয়ে যুদ্ধ করেছিলেন থমাস হার্ট। সেই যুদ্ধে ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির কাছে পরাজিত হয়েছিলেন টিপু সুলতান।

তারপর থেকে কেটে গিয়েছে অনেকটা সময়। কিছুদিন আগে মেজর থমাস হার্টের চিলেকোঠার ঘর থেকে মিলেছে স্বয়ং টিপু সুলতানের ব্যবহৃত কিছু অমূল্য জিনিস। মেজর সাহেবের ঘর পরিষ্কার করতে গিয়ে দেখা গিয়েছে ধুলোমাখা কাগজের মধ্যে কী যেন রাখা রয়েছে, ধুলো সাফ করতেই তা থেকে বেরিয়ে এল সোনার পাত বসানো তলোয়ার এবং বাঘের ছালের রঙের পিস্তল। আচমকা নিজের পূর্বপুরুষের ঘর থেকে এমন জিনিস উদ্ধার হওয়ায় রীতিমতো বিস্ময় প্রকাশ করেছেন ওই ব্রিটিশ পরিবারের সদস্যরা।

জানা গিয়েছে ওই তরোয়ালটি টিপু সুলতানের। ১৭৯৯ সালে চতুর্থ ইঙ্গ-মহীশূর যুদ্ধে টিপু সুলতানকে পরাজিত করে মেজর থমাস হার্ট সুলতানের ব্যবহৃত ওই জিনিসগুলি প্রাসাদ থেকে নিয়ে চলে গিয়েছিলেন ইংল্যান্ডে। তারপর রেখে দিয়েছিলেন নিজের বাড়িতে । ২২০ বছর পরেও জিনিসগুলি অক্ষত অবস্থায় পেলেন তাঁরই বংশধর । টিপু সুলতানের শেষ যুদ্ধে ব্যবহার করা বাঘছাল ছোপের পিস্তল ছাড়াও আরও যে যে জিনিস পাওয়া গিয়েছে সেগুলি হল- একটি সোনার পাত বসানো তলোয়ার, জানা গিয়েছে সেটি নাকি টিপু সুলতানের বাবা হায়দার আলির। সেইসঙ্গে পাওয়া গিয়েছে একটি সোনার বাদামের কৌটো,যার মধ্যে ৩টি বাদামও রয়েছে ! এই মাসের শেষের দিকে নিলামে উঠবে টিপু সুলতানের ওই বন্দুক ও তলোয়ার ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here