উদ্দাম ফণীতাণ্ডবে পথভোলা‚ বিরল অতিথি বাংলায়

998

সব প্রাকৃতিক দুর্যোগই যেমন অনেক কিছু নেয়‚ আবার সামান্য হলেও ফিরিয়ে দেয় | ফণীও তার ব্যতিক্রম নয় | পড়শি রাজ্য ওড়িশা আজ বিধ্বস্ত ফণীর ধ্বংসলীলায় | আবার ওই ফণীই বাংলাকে দিয়েছে ছোট্ট অথচ দামি উপহার | সে এক সামুদ্রিক পাখির ছানা | উড়ে এসেছে ঝড়ে | লাল লেজের ট্রপিক বার্ড | ভারত মহাসাগরীয় ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের বাসিন্দা ওই পাখিকে হুগলির এক গ্রামে সম্প্রতি দেখা গিয়েছে | এই প্রথম এই প্রজাতির পাখি দেখা গেল বাংলায় | ভারতে এই নিয়ে এর দর্শন দ্বিতীয়বার পাওয়া গেল |

ডানকুনির কাছে জগদীশপুর বাইগাছি গ্রামে তাকে দেখতে পান জনৈক সান্ত্বনা আচার্য | তিনি পাখির ছানাটিকে তুলে দেন স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার হাতে | তারপর তার জায়গা হয় বখখালির কাছে জম্বু দ্বীপে |

জানা গিয়েছে‚ এটিকে যখন উদ্ধার করা হয় তখন কুকুরের দল ঘিরে ছিল | দীর্ঘ উড়ানে সক্ষম এই পাখি | তবে ঝড়ের মুখে পড়ে বোধহয় সব শক্তি হারিয়েছিল | তাই অশক্ত ডানা আর মেলতে পারছিল না | বিশারদরা জানাচ্ছেন‚ এই প্রথম ভারতীয় মূল ভূখণ্ডে গভীর মহাসাগরীয় পাখি দেখা গেল | এর আগে ১৯৪৭ সালে যখন প্রথম এই পাখি উড়ে এসেছিল ভারতীয় ভূমিতে‚ তা মূল ভূখণ্ডে ছিল না | তাকে দেখা গিয়েছিল নিকোবরের ২০০ কিমি দক্ষিণে | এবং তাও সমুদ্রের উপরে উড়ন্ত অবস্থায় | যেখানে সে উড়ছিল তা ছিল ভারতীয় জলসীমা | কিছুদূরেই আন্তর্জাতিক জলসীমা | সেদিক দিয়ে এবার একেবারে মূল ভূখণ্ডেই অতিথি এই পাখি | 

বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন‚ এই পাখি মূলত ক্রান্তীয় অংশে দ্বীপে বাসা বানিয়ে বংশবিস্তার করে | ফণীর দাপটে পথ হারিয়েছিল সে | তার মতোই আর এক পথভোলা পাখি চলে এসেছিল নদিয়ার ফুলিয়ায় | ‘Frigatebird’ প্রজাতির সেই পাখিরও ছবি তোলা হয়েছে | এই প্রজাতিরও বাংলায় দ্বিতীয় আগমন | গত বছর একে দেখা গিয়েছিল মৌসুনি দ্বীপে |

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.