পাতিলেবুর নানান অজানা ব্যবহার

সৌন্দর্য, স্বাস্থ্য – সবক্ষেত্রেই পাতিলেবুর অনেক রকমের উপকারিতার কথা আমরা অনেকেই জানি | খাবারে টক স্বাদের আমেজ আনাই শুধু নয়, পাতিলেবুর মধ্যে রয়েছে বহু উপকারিতা | বাজার থেকে আমরা প্রায় রোজই কিনে আনি | সরবত করা হোক বা সালাদের মুখোরোচক স্বাদ আনা – কোনওটতেই জুড়ি নেই | আসুন জেনে নেওয়া যাক এই সহজলভ্য জিনিসটির নানান উপকারিতার কথা |

# ঘরের মধ্যে দুর্গন্ধের প্রকোপ? রোজমেরি আর ভ্যানিলা এসেনশিয়াল অয়েলের সঙ্গে পাতিলেবুর এসেনশিয়াল অয়েল মিশিয়ে ঘরে ছিটিয়ে দিন৷ প্রাকৃতিক রুম ফ্রেশনার হিসেবে কাজ করবে৷

# ঘরে মশা-মাছির উপদ্রব কমাতেও ব্যবহার করতে পারেন পাতিলেবু৷ একটা পাতিলেবু অর্ধেক করে কেটে নিন৷ তাতে গুঁজে দিন কয়েকটা গোটা লবঙ্গ৷ ঘরের এদিক-ওদিকে ছড়িয়ে রেখে দিন এই লবঙ্গসহ পাতিলেবুর টুকরোগুলি৷ মশা-মাছি পালাবে৷ যেসব খাবারকে এদের আক্রমণ থেকে বাঁচাতে চান সেগুলির চারধারে পাতিলেবুর রসের একটি বৃত্ত টেনে দিন। দেখবেন, পোকামাকড় আর ওই সব খাবারের ধারে-কাছে ঘেঁষবে না। বাড়ির জানলার চারধারে পাতিলেবুর রস মাখিয়ে রাখলেও বাড়িতে পোকার উৎপাত কমবে।

# নখের হলুদ দাগ তোলার ক্ষেত্রেও রয়েছে পাতিলেবুর দারুণ ভূমিকা। বেশিরভাগ ভারতীয়দেরই অভ্যাস চামচ ব্যবহার করার বদলে হাত দিয়ে খাওয়া। যে কারণে হাতের নখে তেল-মশলার হলুদ দাগ ধরে যায়। এই দাগ তোলার জন্য খেয়ে ওঠার পর একট‌ু পাতিলেবুর রস নখে ঘষে নিন। তারপর সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন, দাগ উঠে গিয়েছে।

# চপিং বোর্ড জীবাণুমুক্ত রাখতেও ব্যবহার করতে পারেন৷ ব্যবহার করা হয়ে যাওয়ার পর চপিং বোর্ডে ভালো করে পাতিলেবুর রস মাখিয়ে নিন৷ দেখবেন চপিং বোর্ডের দুর্গন্ধ দূর হবে৷ পিঁপড়ে বা আরশোলারাও চপিং বোর্ডের কাছে ঘেঁষবে না৷

# গরমকালে ঘামের দুর্গন্ধের সমস্যায় কমবেশি ভোগেন সকলেই। এই দুর্গন্ধ দূর করার জন্য কয়েক ফোঁটা লেবুর রস ঘষে নিন বগলে। লেবুর রসে যে সাইট্রিক অ্যাসিড থাকে তা দুর্গন্ধ সৃষ্টিকারী ব্যাকটেরিয়াগুলিকে মেরে ফেলে। ফলে প্রাকৃতিক উপায়ে ঘামের গন্ধ থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

# ফ্রিজের দুর্গন্ধ তাড়ান পাতিলেবু ব্যবহার করে৷ আগে দেখে নিন আঢাকা আদা-রসুন বাটা, কাঁচা পেঁয়াজ, কোনও পচনশীল ফল বা সবজি ফ্রিজে আছে কিনা৷ থাকলে তা প্রথমে বের করে নিন৷ তারপর এক টুকরো লেবু কেটে রেখে দিন ফ্রিজের এক কোণে৷ লেবুর রসে ভেজানো তুলোও রাখতে পারেন৷ একই ভাবে কাজ করবে৷

# আলু, আপেল, কিংবা শশা বেশিদিন রেখে দিলে একটা খয়েরি দাগ হয়ে যায়। দাগ হওয়া আটকাতে সবজি বা ফল বাজার থেকে বাড়িতে আনার পর কয়েক ফোঁটা পাতিলেবুর রস মাখিয়ে রেখে দিন। তরিতরকারি থাকবে তাজা। যেসব ফল খোসাসুদ্ধ খাওয়া হয়, সেগুলিতে পাতিলেবুর রস মাখিয়ে রাখলে খাওয়ার আগে জলে ধুয়ে নেবেন।

# বেসিন বা কমোডের হলুদ দাগ সহজে তুলতে চাইলে দাগের উপর কয়েক ফোঁটা লেবুর রস ফেলে স্ক্রাবার দিয়ে ঘষে দিন। দাগ চলে যাবে।

তাহলে দেখলেন তো চেনা পাতিলেবুর সাহায্যে কতরকমের অচেনা ঘরোয়া টোটকা ব্যবহার করে নিজেকে‚ নিজের ঘর ও জিনিসপত্রকে সুন্দর ও সুগন্ধময় করে রাখতে পারেন ! চটপট কাজে লাগাতে অবশ্যই হাতের কাছে রাখুন পাতিলেবু |

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

Please share your feedback

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Illustration by Suvamoy Mitra for Editorial বিয়েবাড়ির ভোজ পংক্তিভোজ সম্পাদকীয়

একা কুম্ভ রক্ষা করে…

আগের কালে বিয়েবাড়ির ভাঁড়ার ঘরের এক জন জবরদস্ত ম্যানেজার থাকতেন। সাধারণত, মেসোমশাই, বয়সে অনেক বড় জামাইবাবু, সেজ কাকু, পাড়াতুতো দাদা