‘গরিব ভারতীয়দের আইফোন কেনার ক্ষমতা নেই’! ইনস্টাগ্রাম পোস্টে লিখলেন আমেরিকান এই ব্লগার

মাত্র পাঁচ মাস আগেই সাধ করে কিনেছিল আইফোন। কিন্তু ভারতে বেড়াতে এসে জয়পুরে হারিয়ে ফেলেন আমেরিকান এক ব্লগার। আর ফোন হারিয়ে ফেলার সঙ্গে সঙ্গেই ইনস্টাগ্রামে দেশবাসীর বিরুদ্ধে ইনস্টাগ্রামে লম্বা একটি পোস্ট করলেন কোলিন গ্র্যাডি নামে এক মহিলা।

কোলিন গ্র্যাডি, ট্রাভেল ব্লগিংয়ের পাশাপাশি তিনি একজন যোগা-র প্রশিক্ষক। জয়পুরে বেড়াতে এসে নিজের ফোন হারিয়ে ফেলে ভারতবাসীর বিরুদ্ধে যা-নয়-তাই মন্তব্য করলেন ওই বিদেশিনী। তাঁর দাবি, ভারতে বেড়াতে এসে, জয়পুরের একটি হোটেলে নিজের আইফোনটি হারিয়ে ফেলেন তিনি। ইনস্টাগ্রাম পোস্টে তিনি লিখলেন, “ভারতীয়রা এতটাই গরিব, যে একটা আইফোন পর্যন্ত কেনার ক্ষমতা নেই তাদের।”

ইনস্টাগ্রামে লম্বা একটি পোস্টে কোলিন গ্র্যাডি আরও লিখেছেন, “গরিব একটা দেশে ঘুরতে এসে, আমি আমার ফোন হারিয়ে ফেলেছি। ভারতের সব থেকে ঠগবাজ টুরিস্ট স্পট হল জয়পুর। আমার ওই আইফোন এক্স মডেলের ফোনটা ফিরে পাওয়ার আর আশাও করি না। কারণ, ফোনের যা দাম তাতে বহু ভারতীয়ের সারা জীবনটাই চলে যাবে। যে গেস্ট হাউসে আমি ছিলাম, সেখানে কম্পিউটার খুলে ফোনটা খোঁজার চেষ্টাও করে দেখি। কিন্তু পরে ভাবলাম, ফোনটা ফ্লাইট মোডে থাকলে অযথা সময় নষ্ট করছি, কোনও লাভ নেই। তবে গেস্টহাউসের মালিক হিন্দিতে কিছু মেসেজ লিখে পাঠিয়েছিলেন আমার ফোনে, যাতে ফোনটা কেউ পেলে আমাকে ফিরিয়ে দেন।’

এহেন একটি পোস্ট করার কিছু সময় পরেই গেস্ট হাউসের মালিকের ফোনে গ্র্যাডির হারিয়ে যাওয়া ফোনের নম্বর থেকে একটি ফোন আসে। যিনি কোলিন-এর ফোনটি পেয়ে ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য যোগাযোগ করেছিলেন। নিজের সাধের ফোনটি খুঁজে পেয়ে কোলিন আরও একটি পোস্ট করে লেখেন, “মোটরসাইকেল নিয়ে আমরা ওই লোকটার সঙ্গে দেখা করে ফোনটা আনতে যাই। যে মানুষটা আমার ফোনটা খুঁজে পেয়েছিলেন, তাঁর কাছেও একই আইফোন এক্স রয়েছে এবং এটা একটা মিরাকেল, যে এ দেশে এমন একজন মানুষকে খুঁজে পেলাম, যাঁর কাছে আইফোন রয়েছে!” 

ইতিমধ্যেই কোলিন-এর করা পোস্ট ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়, নানান ভাষায় বেশ কড়া ভাষাতেই জবাব দিয়েছেন এই বিদেশিনীকে। দিনভর সমালোচনার ঝড় বয়ে গিয়েছে কোলিন-এর করা পোস্টে। অনেকেই এর যোগ্য জবাব দিতে তুলে ধরেছেন, এ দেশে প্রতি মাসে কত আইফোন বছরে বিক্রি হয় তার পরিসংখ্যান। আবার কেউ বলেছেন, এ দেশে কত টাকা খরচ করে স্ট্যাচু তৈরি হয়, তার কথা। এভাবেই ক্রমাগত তীব্র ট্রোলড হওয়ার পর ভারতীয়দের কাছে ক্ষমা চেয়ে নেন কোলিন গ্র্যাডি। এবং নিজের ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট থেকে ডিলিট করে দেন পোস্টটিও। কিন্তু এপরেও ট্রোলিংয়ের স্ক্রিনশট নিয়ে কড়া প্রত্যুত্তর দিয়েছেন ভারতীয়রা। এরপর নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টটাই ডিলিট করে দেন আমেরিকান ওই ট্রাভেল ব্লগার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here