‘ভারতের শেষ চায়ের দোকানে’ বসে গলা ভিজিয়েছেন কোনওদিন ? জানেন কোথায় সেই চা-ঠেক ?

2445

চায়ের কাপে তুফান তো অনেক দোকানে বসে তুলেছেন | কিন্তু দেশের শেষ চায়ের দোকানে যাওয়া হয়েছে আপনার ? যদি না গিয়ে থাকেন তবে এই পুজোতে পরিকল্পনা করতে পারেন | ভারতের শেষ চায়ের দোকানে বসে গরম চায়ের পেয়ালায় চুমুক দেওয়ার |

তার জন্য আপনাকে যেতে হবে উত্তরাখণ্ড | এর চামোলি জেলায় বদ্রীনাথের কাছে আছে মানা গ্রাম | ভারত-তিব্বত সীমান্ত থেকে মাত্র ২৪ কিমি দূরে এই গ্রাম হল এ তল্লাটে ভারতীয় সীমানায় শেষ গ্রাম | সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ১০ হাজার ২৪৮ ফিট উঁচুতে মানা গ্রামে আছে এক চায়ের ঠেক‚ যাকে সবাই চেনে ভারতের শেষ চায়ের দোকান বলে |

হিমালয়ের কোলে মানা গ্রামকে গড়ে তোলা হয়েছে পর্যটন-গ্রাম হিসেবে | সারা গ্রামে ১৮০ টি ঘরে বাস ৬০০ মানুষের | এরা সবাই মঙ্গোলয়েড ভোটিয়া সম্প্রদায়ের | পাহাড়ের ঢালে নিজেদের বাড়িতে এক চিলতে বাগানে এরা ফসল ফলায় |

কিচেন গার্ডেনের সেই সব্জি বদ্রীনাথের বিভিন্ন হোটেলে বিক্রি করাই মূল জীবিকা | অক্টোবর থেকে মার্চ তীব্র শীতে তাঁরা নেমে যান চামোলিতে | বছরের বাকি সময়ে সব্জি চাষ ছাড়াও তাঁদের আর এক পেশা হল বাড়িতে অতিথি আপ্যায়ন |

বেশিরভাগ বাড়িতেই বানানো হয়েছে হোম স্টে-এর সুযোগ সুবিধে | স্থানীয় বাসিন্দারা কাজ করেন পর্যটকদের গাইড হিসেবে | তাঁদের বাড়িতে বসে চুমুক দিতেই পারেন তুলসি চায়ে | অথবা গলা ভেজাতে পারেন ভারতের শেষ চায়ের দোকানে |

তার ফাঁকে ঘুরে দেখে নিন মানা গ্রাম | পৌরাণিক চিহ্ন ছড়ানো এই গ্রাম নাকি পদব্রজে পেরিয়েছিলেন পাণ্ডবরা | মহাপ্রস্থানের পথে | গ্রামে আছে ভীম পুল | যা নাকি স্বয়ং কৌন্তেয় ভীমসেনের হাতে তৈরি |

কথিত‚ খরস্রোতা সরস্বতী নদী পেরোতে পারছিলেন না পাণ্ডবরা | তাই ভীমসেন নদীর উপরে ফেলে দেন বিশল বড় পাথর | তার উপর দিয়ে হেঁটে যান সবাই | সেই পাথরের নামই ভীম পুল |

তার নিচ দিয়ে বয়ে চলেছে ছোট্ট সরস্বতী নদী | কয়েকশো মিটার গিয়েই মিশেছে অলকানন্দার সঙ্গে |

মানা গ্রাম দেখা সাঙ্গ হলে যেতে পারেন মানা পাসে | বিশ্বের উচ্চতম গিরিপথ এটা‚ যেখানে যান চলাচল সম্ভব | তবে এখানে যেতে হলে দরকার হয় বিশেষ অনুমতির | সেটা পেয়ে গেলে হতেই পারেন মানা পাসের মুসাফির | তার আগে ভারতের শেষ চায়ের দোকানে বসে গলা ভিজিয়ে নিন |

Advertisements

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.