ত্বক পরিচর্যার রুটিনে অবশ্যই রাখুন বেবি অয়েল

শিশুর মতো কোমল নরম ত্বক খুব সহজেই আপনিও পেতে পারেন। আর তার জন্য আপনার দরকার শুধু একটু বেবি অয়েল। বেবি অয়েলের গুণেই আপনার ত্বক হতে পারে সদ্যোজাত শিশুর মতোই নরম আর মসৃণ। কারন, বেবি অয়েলে আছে ভিটামিন ই, ভিটামিন এ, অ্যালো ভেরা, মধু আর মিনারেল অয়েলের গুণ। যা ত্বককে সুস্থ আর সতেজ রাখে। তাই প্রতিদিনের ত্বক পরিচর্যার রুটিনে অবশ্যই রাখুন বেবি অয়েল।

নখের যত্নে
নখের কোনা থেকে চামড়া উঠে যাওয়ার খুবই যন্ত্রণাদায়ক। এই সমস্যায় অনেকেই ভোগেন। এই সমস্যার সামাধানে সাধারণ কিউটিকল কেয়ার ক্রিমের বদলে বেছে নিন বেবি অয়েল। তুলোয় করে নখের চারপাশে লাগান, হালকা হাতে মাসাজ করুন। কিউটিকল সুস্থ থাকবে, নখও থাকবে স্বাভাবিক এবং দ্যুতিময়।

ত্বকের আদর্শ ময়শ্চারাইজার
আপনার ত্বক যদি প্রচণ্ড শুষ্ক এবং সংবেদনশীল হয় তবে ময়শ্চারাইজার হিসেবে বেছে নিন বেবি অয়েল। মুখ ধুয়ে বা স্নানের পর বেবি অয়েল মাখুন। তাতে তেল শরীরে তাড়াতাড়ি শুষে যাবে, বাড়তি জেল্লাও পাবেন ত্বকে।

আদর্শ মেকআপ রিমুভার
ক্লেনজার দিয়ে ঘষে ঘষে মেকআপ তুলতে গিয়ে আদপে ক্ষতিটা হয় ত্বকেরই। এর চেয়ে তুলোয় করে বেবি অয়েল নিয়ে তাই দিয়ে মেকআপ তুলুন। মেকআপের প্রতিটি কণা উঠেও যাবে, সেই সঙ্গে ত্বকও থাকবে আর্দ্র আর কোমল।

ফাটা গোড়ালির জন্য
বেবি অয়েলের ভিটামিন ই ত্বকের সমস্ত ক্ষতি মেরামত করে সহজেই। তাই ফাটা গোড়ালির সহজ সমাধান খুঁজতে হলে ভরসা রাখতে হবে সেই বেবি অয়েলেই!। হালকা করে এই তেল গরম করে নিন, তারপর গোড়ালির ফাটা অংশে ভালো করে মাসাজ করুন। তার আগে যদি পা পরিষ্কার করে পিউমিস স্টোন দিয়ে ঘষে শুকনো চামড়াগুলো তুলে দিতে পারেন, তবে খুব দ্রুত সেরে ওঠে! বেবি অয়েল মাখার পর কিছুক্ষণ মোজা পরে থাকবেন, যাতে তেল ত্বকের গভীরে প্রবেশ করতে পারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here