দুর্গন্ধযুক্ত জুতো-মোজা বেচে আকাশছোঁয়া উপার্জন সুন্দরী মডেলের

এক সহকর্মী বলেছিলেন তাঁর পা খুব সুন্দর | সেটাই যে খ্যাতি এনে দেবে‚ তখনও জানতেন না | আজ শুধু পদযুগলের জন্য বিশ্ব জুড়ে বিখ্যাত রক্সি সাইক্স | তাঁর পোশকি পরিচয়  ফুট ফেটিশ মডেল  | অর্থাৎ যিনি পদযুগলের ছবি দিয়ে পুরুষদের মনোরঞ্জন করেন | যৌন তৃপ্তি দেন | আগে শুধু পা দেখিয়ে মোটা অর্থ পেতেন | এখন তাঁর ব্যবহৃত মোজাও বহুমূল্য | দুর্গন্ধযুক্ত সেই মোজার বিক্রি করে উপার্জন করেন বার্ষিক ১ লাখ পাউন্ড |

ইনস্টাগ্র্যামে তাঁর ফলোয়ারের সংখ্যা দশ হাজারের বেশি | ৩৩ বছর বয়সী রক্সি সোশ্যলা মিডিয়ায় পোস্ট করেন পায়ের ছবি | বিভিন্ন ভঙ্গিমায় | প্রথমে শুধু লাইক কমেন্ট শেয়ার | তার পরেই অনুরাগীদের চাহিদা বাড়তে থাকে | রক্সি জুতো মোজা বিক্রি শুরু করলেন | চাহিদা বৃদ্ধির সঙ্গে দাম বাড়ল তাল মিলিয়ে | গত চার বছর ধরে জুতো মোজা বিক্রি করছেন তিনি | এখন ব্যবহৃত‚ দুর্গন্ধযুক্ত জুতো ও মোজা বেচে তাঁর বার্ষিক উপার্জন ভারতীয় মুদ্রায় ৯৫ লক্ষ টাকা |

তাঁকেই অনুরাগীরা বলছেন‚ দেহি পদপল্লবমুদারম !

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

Please share your feedback

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কফি হাউসের আড্ডায় গানের চর্চা discussing music over coffee at coffee house

যদি বলো গান

ডোভার লেন মিউজিক কনফারেন্স-এ সারা রাত ক্লাসিক্যাল বাজনা বা গান শোনা ছিল শিক্ষিত ও রুচিমানের অভিজ্ঞান। বাড়িতে আনকোরা কেউ এলে দু-চার জন ওস্তাদজির নাম করে ফেলতে পারলে, অন্য পক্ষের চোখে অপার সম্ভ্রম। শিক্ষিত হওয়ার একটা লক্ষণ ছিল ক্লাসিক্যাল সংগীতের সঙ্গে একটা বন্ধুতা পাতানো।