স্টেশন চত্বরে মাত্র এক টাকার ক্লিনিকে ভূমিষ্ঠ শিশু

199

আম্বিভালি থেকে কুরলা যাত্রা করছিলেন ইশরত শেখ নামে অন্তঃসত্ত্বা এক মহিলা। মাঝপথে দাদার স্টেশনে প্রসব বেদনা অনুভব করেন তিনি। কিন্তু মাঝরাস্তায় কীভাবে প্রসব হবে সেই নিয়ে যাত্রীদের মধ্যে দেখা দেয় উদ্বেগ। কিন্তু তারপরেও একটি সুস্থ সবল সন্তানের জন্ম দেন ওই মহিলা। কিন্তু কীভাবে?

একটি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম সূত্রের খবর অনুযায়ী, প্রসব বেদনা ওঠার সঙ্গে সঙ্গেই আরপিএফ এর মহিলা কর্মীদের সাহায্যে স্টেশন চত্বরের এক টাকার ক্লিনিকে নিয়ে যাওয়া হয় ইশরতকে। সেখানেই একটি ফুটফুটে পুত্র সন্তান প্রসব করেন ইশরত । কিন্তু কীভাবে সম্ভব হল এত কিছু? ওই অন্তঃসত্ত্বা মহিলার খবর পেতেই থানে পুলিশের তরফ থেকে একটি স্ট্রেচার এবং একটি মেডিক্যাল এমার্জেন্সি রুম-এর ব্যবস্থা করা হয়। এই মেডিক্যাল এমার্জেন্সি রুমগুলিই ওয়ান রুপি ক্লিনিক নামে পরিচিত। দাদার স্টেশনে দুই নম্বর প্ল্যাটফর্মে রয়েছে এই মেডিক্যাল এমার্জেন্সি রুম তথা এক টাকার ক্লিনিক। সেখানেই প্রসব হয় তাঁর।

এরপর মা এবং সন্তান দু’জনকেই থানে সিভিল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সিইও আরও জানিয়েছেন যে, ভারতীয় রেলের পক্ষ থেকে এই এক টাকার ক্লিনিকের ব্যবস্থা চালু হওয়ায় বহু মানুষের অনেক সুবিধা হয়েছে। সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষ এর দ্বারা অনেকটাই উপকৃত হয়েছেন। থানের এই এক টাকার ক্লিনিকে এই নিয়ে তৃতীয়বার সফল ডেলিভারি সম্ভব হল।

Advertisements

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.