ভুল নম্বরে ফোনের মাশুল ! ১৫ বছর বয়সী স্বামীর স্ত্রী ষাটোর্ধ্ব প্রৌঢ়া

1476

ক্ষণিকের ভুলের বড় মাশুল দিতে হচ্ছে এক কিশোরকে | ঠাকুমা-দিদিমার বয়সী এক বৃদ্ধাকে স্ত্রী পরিচয়ে মান্যতা দিতে হয়েছে তাকে | এই ঘটনা অসমের | 

ওই কিশোর অসমের গোয়ালপাড়ার বাসিন্দা | জানা গিয়েছে‚ সম্প্রতি ফোনের রং নাম্বারের খেলায় এক অচেনা নারীর সঙ্গে কথা হয় ওই কিশোরের | তার দাবি‚ এক বন্ধুকে ফোন করতে গিয়ে ভুল করে ওই নম্বরে ফোন চলে যায় | অপরিচিতার কণ্ঠস্বরেই প্রেমে পড়ে যায় কিশোর | মাঝে মাঝেই ফোনে চলত আড্ডা |

দিনকয়েক আগে প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করার কথা স্থির হয় কিশোরের | কথামতো প্রেমিকার বাড়িতেই চলে যায় সে | প্রথমে বাড়ির লোকের কাছে বেশ খাতির পায় সে | কিছুক্ষণ পর তার সামনে আসেন প্রেমিকা | দেখে তো ওই কিশোর হতভম্ব ! তার সামনে যিনি দাঁড়িয়ে আছেন তিনি ষাটোর্ধ্ব এক প্রৌঢ়া | 

প্রথমে কিশোর ভেবেছিল‚ বুঝি তার প্রেমিকার দিদিমা বা ঠাকুমা | পরে শুনল‚ সে-ই ফোনে গল্প করে চলা প্রেমিকা ! জানা গিয়েছে‚ স্বামীহীনা ওই মহিলার বিয়ের চেষ্টায় ছিলেন বাড়ির লোকজন | অভিযোগ‚ জোর করে ওই কিশোরের সঙ্গে প্রৌঢ়ার বিয়ে দিয়ে দেওয়া হয় | 

পুলিশে অভিযোগ জানিয়েছে কিশোরের পরিবার | আপাতত প্রৌঢ়া স্ত্রীকে নিয়েই থাকতে হচ্ছে নাবালক স্বামীকে |

Advertisements

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.